যশোরে কমরেড অমল সেনের স্মরণোৎসব শুরু

যশোর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ২২:৫৬

কমিউনিস্ট আন্দোলনের পথিকৃৎ, তেভাগা আন্দোলনের অন্যতম নেতা কমরেড অমল সেনের ১৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দুই দিনব্যাপী স্মরণোৎসব উদ্বোধন হয়েছে। শুক্রবার যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা বাকড়ী স্কুল মাঠে স্মরণ সভা ও মেলার আয়োজন করে অমল সেন স্মৃতি রক্ষা কমিটি। তবে এবারের অমল সেনের স্মরণোৎসব ভিন্ন রূপে আয়োজন করা হয়।

সম্প্রতি বাম এ সংগঠনটি দ্বি-খণ্ডিত হওয়ার কারণে এবার দিবসটি পৃথকভাবে পালন করার সিদ্ধান্ত নেয় পরস্পর বিরোধী দুই পক্ষ।

প্রথম দিন রাশেদ খান মেনন-ফজলে হোসেন বাদশা এবং দ্বিতীয় দিন আজ স্মরণোৎসব পালন করবে বিমল বিশ্বাস-ইকবাল কবির জাহিদ পক্ষীয়রা। এ কারণে গেল বছরগুলোতে এ বাম রাজনৈতিক সংগঠনটির যেসব নেতাকর্মী এককাতারে শামিল হয়েছিলেন আদর্শের নেতা কমরেড অমল সেনকে শ্রদ্ধা জানাতে-তাদের অনেকেই প্রথমদিন ছিলেন অনুপস্থিত।

এদিন বিকাল ৩টায় বাকড়ী স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত অমল সেন স্মরণ সভায় সভাপতিত্ব করেন অমল সেন স্মৃতি রক্ষা কমিটির সহসভাপতি কমরেড নজরুল ইসলাম।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি বলেন, ১৫ বছরের উন্নয়নে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। তবে সে উন্নয়নে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ যুক্ত হতে পেরেছে কিনা সেটা পর্যবেক্ষণ করার প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

তিনি বলেন, কৃষক আজ ফসলের ন্যায্য দাম পায় না। অনিশ্চয়তার সম্মুখীন হয়ে পড়েছে কৃষক। লটারির নামে যাদের ঘরে ধান নাই, তাদের কাছ থেকে ধান কিনে নিচ্ছে। কমরেড অমল সেন কৃষকের অধিকার আন্দোলনে ভূমিকা রেখে গেছেন।

রাশেদ খান মেনন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, কৃষক যদি ফসলের সঠিক দাম না পায়, তাহলে তারা (কৃষক) ধর্মঘট করবে। কমরেড অমল সেন সেই মন্ত্র শিখিয়ে গেছেন।

সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহীর সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরো সদস্য আনিসুর রহমান মল্লিক, ড. সুশান্ত দাস, নূর আহমেদ মল্লিক, সাতক্ষীরার এমপি মোস্তফা লুৎফুল্লাহ, পলিট ব্যুরো সদস্য ও বরিশাল জেলা সভাপতি কমরেড নজরুল ইসলাম, কমরেড জ্যোতি শংকর, যশোর জেলা কমিটির সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক সবদুল হোসেন খান, কৃষক নেতা মাহমুদ হাসান মানিক, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতা কামরুল আহসান, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের নড়াইল জেলা সভাপতি আব্দুস সালাম খান, কবির লাকরা, কমরেড জাকির হোসেন রাজু, নড়াইল সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নারী নেত্রী স্বপ্না সেন, যশোর জেলা যুবমৈত্রীর সভাপতি অনুপ কুমার পিন্টু, যশোর জেলা ছাত্রমৈত্রী সভাপতি শ্যামল শর্মা প্রমুখ।

এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টায় অমল সেনের সমাধিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি ও পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপিসহ কেন্দ্রীয়, বিভিন্ন জেলা-উপজেলা ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

সংগঠনটির অপর অংশের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক কমরেড ইকবাল কবির জাহিদসহ তার অনুসারীরাও এদিন অমল সেনের সমাধিতে পুস্পমাল্য অর্পণ করেন। একই সাথে শ্রদ্ধা জানান খুলনা জেলা ও মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টি, গোপালগঞ্জ, সাতক্ষীরা, রাজশাহী, বরিশাল, নড়াইল, মাগুরা, কুষ্টিয়া, রাজবাড়ী, চুয়াডাঙ্গা জেলাসহ সংগঠনটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

এদিকে প্রতিবারের ন্যায় এবারও কমরেড অমল সেনের স্মরণোৎসবকে ঘিরে বাকড়ীতে মেলা বসেছে। কয়েকশ দোকানি তাদের পণ্য সাজিয়ে বসে আছে। ভিড়ও বেড়েছে বেশ।

(ঢাকাটাইমস/১৭জানুয়ারি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :