বিশ্বকাপ-বীর আকবরকে ফুলে ফুলে বরণ রংপুরে

রফিকুল ইসলাম রফিক, রংপুর
 | প্রকাশিত : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২০:৫৫

নিজ শহর রংপুরে ফুলে ফুলে সংবর্ধিত হয়েছেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ের বীর সেনানী আকবর আলী। ঢাকা থেকে দুপুরে রংপুরে পৌছার পর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পথে-ঘাটে, মাঠে আড়ম্বর-অনাড়ম্বভাবে হাজারো মানুষের ভালোবাসা আর সংবর্ধনায় সিক্ত হয়েছেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার একটি বেসরকারি বিমানে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে রওনা হয়ে দুপুর ১২টায় সৈয়দপুর বিমানবন্দরে আসেন আকবর আলী। সেখানে তাকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান, বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠকসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও উচ্ছ্বসিত জনগণ।

বিমানবন্দর থেকে বিশ্বকাপ বীরকে কার, মাইক্রোবাস, মোটরবাইকের বিশাল বহরে করে পুরো রংপুর মহানগর প্রদক্ষিণ করে রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে নেওয়া। পথে তাকে একনজর দেখার জন্য নারী, শিশু, পুরুষসহ সর্বস্তরের মানুষ মোড়ে মোড়ে, রাস্তার দুই ধারে দাঁড়িয়ে ছিল। তারা হাত উঁচিয়ে ও ফুল ছিটিয়ে আকবরকে বরণ করে।

পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে পুলিশের সুসজ্জিত বাদ্যযন্ত্রের সুরে ও রংপুর ক্রিকেট একাডেমির শিশু-কিশোরেরা ফুল ছিটিয়ে আকবর আলীকে স্বাগত জানায়। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বাবা মোহাম্মদ মোস্তফা ও বড় ভাই মুরাদ হোসেন।

পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া সংস্থা আয়োজিত গণসংবর্ধনায় ভালোবাসার ফুল, শুভেচ্ছা ও আশীর্বাদে সিক্ত হন আকবর। বিভাগীয় প্রশাসন, সিটি করপোরেশন, জেলা প্রশাসন, জেলা ক্রিড়া সংস্থাসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে তাকে অভিনন্দিত করা হয়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম, জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ এবং জাতীয় পার্টির নেতারা বিপুল সংখ্যক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

পরে তার নিজ পাড়ায় ঢোকার পথে নগরীর কৈলাস রঞ্জন স্কুল গেটের সামনে থেকে ফুলের গালিচা ধরে আর মানুষের পুষ্পবৃষ্টি মাথায় নিয়ে বিকাল চারটায় মা-বাবার কোলে পৌঁছান আকবর।

কিছুক্ষণ বিশ্রাম শেষে বিকালে তাকে আনা হয় সংবর্ধনা মঞ্চে। আতশবাজি, মিউজিক্যাল সাউন্ড শো, আর লাল-সবুজের পতাকায় পশ্চিম জুম্মাপাড়া হয়ে ওঠে বর্ণিল। পাড়া-মহল্লাজুড়ে এখন একটাই নাম- ‘আকবর দ্য গ্রেট’।

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ের পর এটাই আকবরের প্রথম নিজ জেলা সফর। তার শৈশব-কৈশোরের স্বর্ণালি দিনগুলো কেটেছে এই শহরের পশ্চিম জুম্মাপাড়া মহল্লায়। আর তাকে বরণ করে নিতে গত দুই দিন ধরে উৎসবের আমেজ বইছিল পুরো রংপুরসহ আকবর আলীর নিজ মহল্লায়। এই বীর তরুণের রঙে রাঙাতে শুধু আকবরের নিজ বাড়ি নয়, সারা রংপুরে ছিল সাজ সাজ রব। আকবর আলীকে রংপুরে পেয়ে উৎফুল্ল পুরো রংপুরবাসী।

সংবর্ধনায় আকবর আলী বলেন, ‘বাংলাদেশ টিমকে আপনারা যেভাবে সাপোর্ট করে আসছেন, এই সাপোর্ট আগামীতে ধরে রাখবেন। আমাদের জন্য অনেক দোয়া করবেন। আমাদের এই অর্জন যেন শেষ না হয়ে যায়। আমরা আরও সাফল্য চাই। আমরা যেন অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারি।’

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আকবর শুরুতে মাদরাসায় ভর্তি হলেও পরে বাড়ির পাশে বেগম রোকেয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করে নগরীর লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভর্তি হন। ক্লাস সিক্সে উঠে রংপুরের অসীম মেমোরিয়াল ক্রিকেট একাডেমিতে ভর্তি হন। সেখানে অঞ্জন সরকারের হাত ধরে রংপুর জিলা স্কুলের মাঠে তার ক্রিকেটের হাতেখড়িটাও হয়ে যায়। ২০১২ সালে বিকেএসপিতে সুযোগ পান। এরপর শুধুই এগিয়ে যাওয়ার গল্প তৈরি করে আকবর।

বিকেএসপির বয়সভিত্তিক দলে খেলে সুযোগ পেয়ে যান জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৭ দলে। নেতৃত্ব দেওয়ার অভিজ্ঞতাও হতে থাকে সমানতালে।

ক্রিকেটের পাশাপাশি পড়াশোনাটাও দারুণভাবে করেছেন তিনি। ২০১৬ সালে তার এসএসসি পরীক্ষার সময় চলছিল প্রথম বিভাগ ক্রিকেট লিগ। তখন খেলা ও লেখাপড়া দুটিই সামলেছেন দারুণ মনোযোগে। এসএসসিতে জিপিএ-৫ পান তিনি। এইচএসসিতে জিপিএ-৪.৪২ পেয়ে কৃতিত্ব দেখান।

(ঢাকাটাইমস/১৩ফেব্রয়ারি/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :