জামিনে মুক্ত কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ মার্চ ২০২০, ১৪:০২

মধ্যরাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের দণ্ডে কারাগারে যাওয়া কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুর রহমান রিগান জামিনে মুক্ত হয়েছেন। রবিবার সকালে আদালতের নির্দেশে জামিনের পরপর কারাগার থেকে মুক্ত হন বাংলা ট্রিবিউনের এই জেলা প্রতিনিধি।

তবে তার এই জামিন নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন স্বজনরা। তাদের দাবি, পরিবারকে না জানিয়ে আরিফুলকে ভয়ভীতি দেখিয়ে জামিননামায় স্বাক্ষর নেয়া হতে পারে।

রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তার জামিনের আদেশ দেয় আদালত। এর প্রায় দেড় ঘণ্টা পর কারাগার থেকে মুক্ত করে সাংবাদিক আরিফুলের মামাতো ভাই কাজল তাকে চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেছেন বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে।

এর আগে আরিফুলের সম্মতিতে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে অ্যাডভোকেট শাখাওয়াত হোসেন জামিনের জন্য আপিল দাখিল করেন বলে জানান। তার আপিল অনুমোদনের পর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জামিন আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট এসএম আব্রাহাম লিংকন এবং আরিফুলের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট শাখাওয়াত হোসেন ও অ্যাডভোকেট আহসান হাবীব নীলু।

আপিল শুনানি শেষে ২৫ হাজার টাকার বন্ডে স্থানীয় প্রেসক্লাবের সভাপতির জিম্মায় আরিফুলকে জামিন দেয়া হয় বলে জানা যায়।

এর আগে শুক্রবার মধ্যরাতে ফিল্মি কায়দায় আরিফুলকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে বেধড়কভাবে পেটাতে পেটাতে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে নেয়া হয়। সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এক বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

ঘটনাটি দেশজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করে। জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রচার করায় এটা ঘটেছে বলে দাবি সাংবাদিকদের। এ ব্যাপারে হাইকোর্টে একটি রিট হয়েছে। শুনানি শেষে আগামীকাল সোমবার এ ব্যাপারে আদেশের কথা রয়েছে।

আরিফুল ইসলামের বোন রিমা ও মামা নবিদুল জানান, তারা জামিন আবেদন করেননি। তাকে কীভাবে জামিন দেয়া হয়েছে তা তাদের জানানো হয়নি। একই অভিযোগের কথা জানান বাংলা ট্রিবিউনের ন্যাশনাল ডেক্স ইনচার্জ শাহ আলম।

(ঢাকাটাইমস/১৫মার্চ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

গণমাধ্যম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :