আইপিএলের স্পন্সর হবে বাবা রামদেবের প্রতিষ্ঠান

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ আগস্ট ২০২০, ১১:৫৯

করোনার ওষুধ বের করে ফেলেছেন দাবি করে হইচই ফেলেছিলেন। সে দাবি অচিরেই নস্যাৎ হয়ে গিয়েছিল। এবার বাবা রামদেব সটান হাত বাড়ালেন আইপিএল ট্রফির দিকে। আইপিএলের টাইটেল স্পন্সর থেকে এবারের মতো সরে দাঁড়িয়েছে চীনা মোবাইল প্রস্তুতকারী সংস্থা ‘ভিভো’। বিকল্প স্পনসর খুঁজছে বিসিসিআই। এমতাবস্থায় আইপিএলের টাইটেল স্পন্সর হওয়ার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে বাবা রামদেবের সংস্থা ‘পতঞ্জলি’।

সংস্থার মুখপাত্র এস কে তিজারাওয়ালা বলেছেন, ‘‌আইপিএলের টাইটেল স্পন্সর হিসেবে দরপত্র দেওয়ার ভাবনা রয়েছে আমাদের। কারণ, আমাদের এই দেশীয় সংস্থাকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরার জন্য এটা একটা দারুণ মঞ্চ। সুযোগটাকে এভাবেই বিবেচনা করা হচ্ছে। বিষয়টা নিয়ে আলোচনাও চলছে। এখনও চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।’‌

এখনই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না হলেও সবকিছু ঠিকঠাক এগোলে রামদেবের সংস্থা ১৪ আগস্টের মধ্যে বোর্ডের কাছে তাদের প্রস্তাব জমা দেবে বলে জানা গিয়েছে।

সূত্রের খবর, ক্রিকেটবিশ্বে সবচেয়ে লাভজনক টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পন্সর হওয়ার দৌড়ে দেশের বেশ কয়েকটি প্রথমসারির সংস্থার নামও রয়েছে। ধনী সংস্থাগুলি চায় আইপিএলের মঞ্চ ব্যবহার করে বিদেশেও পরিচিতি পেতে। সেই তালিকায় এবার নিজেদের তুলে আনতে চাইছে ‘পতঞ্জলি’। ঘটনাচক্রে, যারা গত আর্থিক বছরে ৮,৩২৯ কোটি টাকা মুনাফা করেছিল।‌‌

টাইটেল স্পন্সর হওয়ার জন্য দরপত্র তোলা যাবে ১৪ আগস্ট বিকেল ৫টা পর্যন্ত। দরপত্র জমা দেওয়ার সময় ১৮ আগস্ট বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত। গত আর্থিক বছরে ৩০০ কোটি টাকার টার্ন ওভার থাকলে তবেই সংশ্লিষ্ট সংস্থা দরপত্র জমা দিতে পারবে।

লাদাখ সীমান্তে ভারত–চীন সম্পর্কে উত্তেজনা বৃদ্ধির পর থেকেই চীনা পণ্য বয়কটের ডাক উঠেছিল দেশ জুড়ে। কেন্দ্রীয় সরকারও একাধিক চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছিল। বিভিন্ন চীনা সংস্থা আইপিএলের বিভিন্ন স্পনসরশিপে জড়িত। তাদরেও সরিয়ে দেওয়ার দাবি ওঠে। সেই মর্মে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলিকে চিঠিও দিয়েছিল দেশের বিভিন্ন বণিকসভা। চীনা সংস্থাগুলিকে না সরালে বণিকসভা আইপিএল বয়কটের হুমকিও দিয়েছিল। গত সপ্তাহে আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকের পরেও চীনা মোবাইল প্রস্তুতকারী সংস্থা ‘ভিভো’ টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পন্সর থেকে যাওয়ায় সোশ্যাল মিডিয়ায় বিক্ষোভের ঝড় ওঠে। তারপরই স্পনসরশিপ থেকে সরে যাওয়ার কথা ঘোষণা করে ওই মোবাইল সংস্থা ‘ভিভো’।

প্রসঙ্গত, ‘ভিভো’ পাঁচ বছরের (‌২০১৮–২০২২)‌ জন্য ২,১৯০ কোটি টাকায় আইপিএলের টাইটেল স্পন্সর হয়েছিল। অর্থাৎ, প্রতিবছর তাদের থেকে গড়ে ৪৪০ কোটি টাকা করে পায় ভারতীয় বোর্ড। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী বছর আবার তাদের আইপিএলের টাইটেল স্পন্সর হিসেবেই ফিরে আসার কথা।

কারণ, এবারের টাইটেল স্পন্সর থাকার সময়সীমা ১৮ আগস্ট দুপুর ১টা থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। যা থেকে স্পষ্ট, ২০২১ সালে ‘ভিভো’–র ফেরার রাস্তা খোলা রাখা হচ্ছে। ফলে শুধু আমিরাতে এবারের টুর্নামেন্টের জন্যই স্পন্সর পেতে হবে বোর্ডকে।

(ঢাকাটাইমস/১১ আগস্ট/এআইএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :