অধ্যাপক জিয়ার পক্ষে শিক্ষক সমিতির বিবৃতি, সই করেননি সভাপতি

ঢাবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০২০, ২৩:০১
ড. অধ্যাপক জিয়া রহমান (ফাইল ছবি)

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনালজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. জিয়া রহমানকে নিয়ে একটি মহল রাজনৈতিকভাবে উত্তেজনা সৃষ্টি করার অপচেষ্টা করছে দাবি করে শুক্রবার রাতে বিবৃতি দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। তবে এই বিজ্ঞপ্তির বক্তব্যের সঙ্গে একমত নন বলে বিজ্ঞপ্তিতে স্বাক্ষর করেননি সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক লুৎফুর রহমান ৷

সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত এই বিবৃতিতে বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছে যে, দেড় বছর আগে ডিবিসি টিভি চ্যানেলে প্রচারিত একটি টকশো থেকে ক্রিমিনালজি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. জিয়া রহমানের বক্তব্য এডিট করে খণ্ডিত ও বিকৃতভাবে উপস্থাপনের মাধ্যমে একটি মহল রাজনৈতিকভাবে উত্তেজনা সৃষ্টি করার অপচেষ্টা করছে । সমিতি এ ধরনের হীন কার্যক্রমে উদ্বেগ প্রকাশ করে এবং এর তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করে। শিক্ষক সমাজের বিরুদ্ধে এই ধরনের মিথ্যা প্রচারণা থেকে সবাইকে বিরত থাকার জন্যও বিবৃতিতে আহ্বান জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে স্বাক্ষর না করার বিষয়ে জানতে চাইলে লুৎফুর রহমান ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘এরকম একটি সেনসেটিভ ইস্যুর বিষয়ে শিক্ষক সমিতির বিজ্ঞপ্তির সাথে আমি একমত পোষণ করি না । তাই আমি স্বাক্ষর করিনি ।’

শিক্ষক সমিতির বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘জিয়া রহমানকে নিয়ে একটি মহল অনলাইনে নানা ধরনের অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে । এরকম কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি কার্যকর পরিষদ সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে যে, একজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকের একাডেমিক বিশ্লেষণকে রাজনৈতিক-অপব্যবহার কাম্য হতে পারে না ।’

শিক্ষক সমিতির এ সিদ্ধান্তটি সর্বসম্মত না উল্লেখ করে লুৎফুর রহমান বলেন, ‘বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ আছে সিদ্ধান্তটি সর্বসম্মত। কিন্তু বিষয়টি আসলে তা নয়। আমি ব্যক্তিগতভাবে এই সিদ্ধান্তের সাথে একমত নই ।’

এ বিষয়ে জানতে সমিতির সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক ভূঁইয়াকে কয়েকবার ফোন দেয়া হলেও তিনি রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

প্রসঙ্গত, দেড় বছর আগে 'ডিবিসি নিউজ' এর 'উপসংহার' নামের এক টক শো’তে 'ধর্মের অপব্যাখ্যায় জঙ্গিবাদ' শিরোনামে আলোচনায় 'আসসালামু আলাইকুম' ও 'আল্লাহ হাফেজ' বলাকে জঙ্গিবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত করে বক্তব্য দেন ড. জিয়া রহমান । সম্প্রতি বিষয়টি ফেসবুকে ভাইরাল হলে অনেকেই এর সমালোচনা করেন। এ নিয়ে গত রবিবার (২৫ অক্টোবর) মাসিক আল বাইয়্যিনাত ও দৈনিক আল ইহসানের সম্পাদক মুহম্মদ মাহবুব আলম একটি এবং ইমরুল হাসান নামে এক আইনজীবী অপর একটি মামলা করেন । পরে মামলা তদন্তের জন্য পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড ক্রাইম বিভাগকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

(ঢাকাটাইমস/৩০অক্টোবর/এমআই/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :