ধর্মভিত্তিক দলগুলো সমস্যা সৃষ্টির চেষ্টা করছে: মেনন

কাজী রফিক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৬ নভেম্বর ২০২০, ১৮:১৪

দেশের বর্তমান রাজনৈতিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। তবে বিএনপি-জামায়াতের পৃষ্ঠপোষকতায় কিছু ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল সমস্যা সৃষ্টির চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেমন।

রবিবার ঢাকা টাইমসের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

রাশেদ খান মেমন বলেন, ‘রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা আমরা দেখছি। কিন্তু একটা জিনিস আমরা স্পষ্ট দেখছি, ধর্মভিত্তিক দলগুলো নতুন করে কিছু সমস্যা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। এরসঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিএনপি-জামায়াত। তারা পেছন থেকে এটিকে সংগঠিত করছে।’

করোনাকালে দেশের রাজনৈতিক দলগুলো তাদের স্বাভাবিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারছে না। অনেক রাজনৈতিক দল তাদের নিজেদের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনাও করতে পারছে না। কেউ কেউ ভার্চুয়াল নির্ভর হয়ে পড়েছে। সেদিক থেকে অনেকটা এগিয়ে রাশেদ খান মেননের ওয়ার্কার্স পার্টি। ভার্চুয়াল সভা ও অনুষ্ঠানের পাশাপাশি সশরীরে অনেক অনুষ্ঠান ও কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে তিনি জানান।

মেনন বলেন, ‘আমরা নিয়মিত কার্যক্রম করছি। জুমের মাধ্যমে অনেকগুলো মিটিং করেছি। পাটকল নিয়ে আমাদের মানববন্ধন হয়েছে সারাদেশে। চিনিকল বন্ধ করে দেয়ার প্রতিবাদে সারাদেশে মানববন্ধন হয়েছে, স্মারকলিপি দিয়েছি। কৃষকদের দাবি নিয়েও আমরা কাজ করছি। নদী উদ্ধার নিয়ে, তিস্তা চুক্তি নিয়ে সারাদেশে মানববন্ধন হয়েছে। নিয়মিত দিবস যেগুলো আছে সেগুলো আমরা পালন করছি। কোনোটা জুমে করছি, কোনোটা সশরীরে করছি।’

ভুঁইফোঁড় কিছু রাজনৈতিক দল সামনে আসছে। এ বিষয়ে রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘এগুলো ওঠে, আবার পড়েও যায়। এটা নিয়ে ভাবনার কিছু নাই।’

১৪ দলের অন্যতম শরিক দল ওয়ার্কার্স পার্টি। জোটের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম মারা যাওয়ার পর আমির হোসেন আমু সেই দায়িত্ব পালন করছেন।

বর্তমানে জোটের কার্যক্রমের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মোহাম্মদ নাসিম মারা যাওয়ার পরে কার্যক্রম কিছুটা স্থিমিত হয়েছিল। তবে বর্তমানে জোটের কার্যক্রম চলমান রয়েছে।’

এদিকে ১৪ দলের সমম্বয়ক আমির হোসেন আমু ঢাকা টাইমসকে জানান, করোনাভাইরাসের কারণে কোনো রাজনৈতিক দল তাদের স্বাভাবিক কার্যক্রম করতে পারছে না। শরিক দল কেন কার্যক্রম করছে না, এ বিষয়ে আমি বলতে পারব না। আমি যেটা মনে করি, করোনার ভেতর কোনো দলই আনুষ্ঠানিকভাবে মিটিং করছে না, করতে পারছে না। এটা বাস্তব।’

১৪ দল সুসংগঠিতই আছে, নতুন করে সুসংগঠিত করার কিছু নাই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘করোনার ভেতরে সক্রিয়তার কোনো ভাবনা আমার নাই। আমার কোনো বাড়তি ভাবনা করোনার ভেতরে নাই। করোনার ভেতরে কোনো দলই মিটিং করে না। নিজেদের মিটিংই করে না। সেখানে ১৪ দল মিটিং করবে কীভাবে?’

(ঢাকাটাইমস/১৬নভেম্বর/কারই/কেআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :