সাশ্রয়ী দামে ভিভোর গেমিং ফোন ওয়াই ২০ জি

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০২ মার্চ ২০২১, ১৭:৩২

সাধ্যের মধ্যে এবার উপভোগ করা যাবে স্মার্টফোনে গেমিংয়ের অসাধারণ অভিজ্ঞতা। গ্লোবাল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ভিভো বাংলাদেশের বাজারে নিয়ে এসেছে ভিভো ওয়াই২০জি মডেলের নতুন একটি চমৎকার স্মার্টফোন। স্মার্টফোনে গেমিংয়ের কথা মাথায় রেখেই ওয়াই২০জি ফোনে ভিভো ব্যবহার করেছে দুর্দান্ত গেমিং প্রসেসর।

২ মার্চ থেকে গ্রাহকরা ভিভোর অথোরাইজড শপ, পিকাবো, জিএন্ডজি অথবা রবিশপের ই-কমার্স স্টোরগুলো থেকে ভিভো ওয়াই২০জি স্মার্টফোনটি ১৭ হাজার ৯৯০ টাকায় কিনতে পারছেন।

ভিভো ওয়াই২০জি স্মার্টফোনে থাকছে ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি, সাথে থাকছে ৫০০০ এমএএইচ সক্ষমতার ব্যাটারি। ভিভো ওয়াই২০জি স্মার্টফোনটি একবার পুরো চার্জ দেওয়ার পর টানা আট ঘন্টা গেমিং করা যাবে স্বচ্ছন্দ্যে। আর সম্পূর্ণ চার্জ দেওয়ার পর ২০ ঘন্টা পর্যন্ত অনলাইন এইচডি মুভি স্ট্রিমিংয়ের জন্য ব্যবহার করা যাবে। চার্জ ফুরিয়ে যাবার শঙ্কায় সঙ্গে পাওয়ার ব্যাংক নিয়ে চলতে হবে না। এর সাথে রয়েছে রিভার্স চার্জিংয়ের সুবিধাও।

ভিভো ওয়াই২০জি হ্যালিও জি-৮০ অক্টাকোর প্রসেসরে তৈরি, যার সর্বোচ্চ ক্লক স্পিড দুই গিগাহার্টজ। অর্থাৎ গেমিংয়ের কথা মাথায় রেখেই তৈরি হয়েছে ওয়াই সিরিজের এই মডেলটি। এতে হাইপার ইঞ্জিন গেম প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে, ফলে টানা গেম খেললেও মোবাইল ফোনটি গরম হয়ে যাবে না। স্টেরিও শব্দ ব্যবস্থাপনা এবং ই-স্পোর্টস প্রযুক্তি সংযুক্তির কারণে এই স্মার্টফোনটি থেকে ভিডিও গেমিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা যাবে খুব সহজেই। আর মোবাইল গেমিংয়ে বসে বাস্তবিক প্রতিযোগিতার আবহ উপভোগ করা যাবে। এমনকি ‘ডোন্ট ডিস্টার্ব মোড’ চালু রেখে গেমিং করা যাবে। ফলে কল এবং ক্ষুদে বার্তার কারণে খেলার কোনো ব্যাঘাত হবে না।

ভিভো ওয়াই২০জি এর র‌্যাম ৬ জিবি ও রম ১২৮ জিবি’র। তবে স্মার্টফোনটিতে অতিরিক্ত মেমোরি কার্ড ব্যবহারের আলাদা ব্যবস্থাও রয়েছে। সেখানে এক টেরাবাইট সক্ষমতার মেমোরি ব্যবহার করা যাবে।

ভিভো ওয়াই২০জি’তে আরও আছে সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট প্রযুক্তি। সেখানে আঙুল স্পর্শ করলে এক সেকেন্ডের এক-তৃতীয়াংশ সময়ের মাঝে সচল হয়ে উঠবে স্ক্রিন। আছে ফেস আনলক প্রযুক্তির সুবিধাও।

ওয়াই২০জি মডেলে তিনটি ক্যামেরা থাকছে। প্রধান ক্যামেরাটি ১৩ মেগাপিক্সেলের, এর সঙ্গে আছে দুই মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ক্যামেরা এবং দুই মেগাপিক্সেলের ডেপথ সেন্সর ক্যামেরা। আর ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে আট মেগাপিক্সেলের। ক্যামেরার সঙ্গে ফেইস বিউটি, পোট্রেট মুড, ইফেক্ট এবং ফিল্টার প্রযুক্তি সন্নিবেশিত থাকছে, যা ছবিকে আরও আকর্ষণীয় ও প্রাণবন্ত করে তুলবে।

হাই ডেফিনেশন (এইচডি+) রেজ্যুলুশনের সাড়ে ছয় ইঞ্চি স্ক্রিন গ্রাহককে মুগ্ধ করবে। স্ক্রিনে সংযুক্ত করা হয়েছে চোখের জন্য ক্ষতিকর ব্লু লাইট ঠেকানোর আই-প্রটেকশন প্রযুক্তি।

বাংলাদেশে ভিভো ওয়াই২০জি অবসিডিয়ান ব্ল্যাক এবং পিউরিস্ট ব্লু রঙে পাওয়া যাবে।

ভিভো বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডিউক বলেন, ভিভো’র ওয়াই সিরিজ বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় স্মার্টফোন হয়ে উঠছে ধীরে ধীরে। ওয়াই২০জি এই সিরিজকে আরও বেশি জনপ্রিয় করে তুলবে। তিনি আরও বলেন, এই মোবাইল গেমিংয়ের ভিন্ন স্বাদ তুলে ধরবে গ্রাহকদের কাছে। কোনো বিড়ম্বনা ছাড়াই দীর্ঘক্ষণ গেম খেলা যাবে।

(ঢাকাটাইমস/২মার্চ/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :