বিদ্রোহীদের হামলায় আহত চাদের প্রেসিডেন্টের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ এপ্রিল ২০২১, ১৮:১১ | প্রকাশিত : ২০ এপ্রিল ২০২১, ১৭:২৩

চাদের নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ইদ্রিস ডেবি মৃত্যুবরণ করেছেন। আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, দেশের উত্তরে বিদ্রোহীদের সঙ্গে সেনাবাহিনীর যুদ্ধ পরিদর্শন করতে যেয়ে তিনি আহত হয়েছিলেন। মঙ্গলবার দেশটির সেনাবাহিনীর একজন মুখপাত্র এই তথ্য জানিয়েছেন। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র আজেম বারমানদা বলেন, যুদ্ধক্ষেত্রে দেশের সার্বভৌম রক্ষা করতে গিয়ে প্রেসিডেন্ট ডেবি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন।

বিবৃতিতে সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জানান, প্রেসিডেন্ট ইদ্রিস ডেবির মৃত্যুর পর তার ছেলে জেনারেল মাহামাত কাকা রাষ্ট্রের অন্তর্বতীকালীন প্রধানের দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। ১৯৯০ সালে এক বিদ্রোহের মাধ্যমে ইদ্রিস ডেবি চাদের ক্ষমতাগ্রহণ করেন। গত ১১ এপ্রিল অনুষ্ঠিত ভোটে তিনি ৭৯.৩ শতাংশ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। এর মাধ্যমে তিনি ষষ্ঠবারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।

চাদের প্রেসিডেন্ট ইদ্রিস ডেবির শাসনের বিরোধিতা করে আসছেন সশস্ত্র বিদ্রোহীরা। প্রতিবেশী লিবিয়ায় তাদের ঘাঁটি। সেখান থেকে চাদের ভেতরে প্রায়ই হামলা চালান তারা। ১১ এপ্রিল চাদে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন চলাকালে তারা হামলা চালায়। এরপর অভিযান চালিয়ে ৩০০ বিদ্রোহী যোদ্ধাকে হত্যা করে সেনাবাহিনী।

প্রেসিডেন্ট ইদ্রিস ডেবির নির্বাচনী প্রচারণার প্রধান জানান, ষষ্ঠবারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর ইদ্রিস ডেবি তার বিজয়ী ভাষণ স্থগিত করে বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে সেনাদের অভিযান পরিদশর্ন করতে যান। চাঁদের লিবিয়া সীমান্তের ঘাঁটিতে বিদ্রোহীরা হামলা করে দেশের দক্ষিণে প্রায় ১০০ কিলোমিটার অগ্রসর হয়। কিন্তু পরবর্তীতে চাদের সেনাবাহিনী বিদ্রোহীদের পরাজিত করতে সক্ষম হন।

এক বিবৃতিতে চাদের সেনাবাহিনী দেশটির উত্তরাঞ্চলে অন্তত ৩০০ জন বিদ্রোহীকে হত্যা করার দাবি করে। ওই বিবৃতিতে বলা হয়, আট দিন আগে চাদের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন চলাকালে হামলা চালান বিদ্রোহীরা। এরপর তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালায় সেনাবাহিনী। এতে পাঁচ সেনাসদস্য নিহত ও ৩৬ জন আহত হন।

(ঢাকাটাইমস/২০এপ্রিল/কেআই)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :