উল্টে যাচ্ছে পরীমনির দাবার চাল

বিনোদন প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৪ জুন ২০২১, ১২:৩১ | প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০২১, ১১:৩৪

চালটা ভালোই চেলেছিলেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। কিন্তু সেই চাল উল্টে এখন নিজেই ফেঁসে যেতে চলেছেন অভিনেত্রী। বোট ক্লাব থেকে একাধিক ভিডিও ফুটেজ এবং ঢাকার একাধিক ক্লাবে পরীমনির ভাঙচুরের ঘটনা প্রকাশ হওয়ার পর এমনই আলোচনা ঢালিউডের অন্দরে। এছাড়া বোট ক্লাবের ঘটনায় পরীমনির দায়ের করা মামলার এজাহারে যা উল্লেখ আছে, সেগুলোও একে একে মিথ্যা প্রমাণ হচ্ছে।

সম্প্রতি বোট ক্লাব ও গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাব থেকে সিসিটিভি ও মোবাইলে ধারণকৃত একাধিক ভিডিও ফুটেজ ফাঁস হয়েছে। পরীমনি মামলার এজাহারে যে অভিযোগগুলো করেছেন, তার সঙ্গে একেবারেই মিলছে না ওই ভিডিও ফুটেজ। ওইসব ভিডিও ফুটেজ সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতোমধ্যেই নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। অনেকে বলছেন, তবে কি ব্যবসায়ী নাসিরকে ফাঁদে ফেলে ব্যক্তিগত কোনো স্বার্থ উদ্ধার করতে চান পরীমনি?

পরীমনি তার মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন, ব্যবসায়ী নাসির তাকে ধর্ষণচেষ্টা ও মেরে ফেলার চেষ্টা করেন। আরও উল্লেখ করেন, তাকে নাকি মুখ চেপে ধরে জোর করে মদ পান করানো হয়েছিল। কিন্তু বোট ক্লাব থেকে ফাঁস হওয়া একাধিক ভিডিওতে তেমন কোনো ঘটনা দেখা যায়নি। বরং একটি ভিডিওতে দেখা যায়, পরীমনি তার সঙ্গীদের নিয়ে টেবিলে বসে স্বাভাবিকভাবেই মদ পান করছেন।

ওই ভিডিওতে আরও দেখা যায়, ব্যবসায়ী নাসির পরীমনিকে মদ খেতে বারণ করছেন, এর উত্তরে পরীমনি তাকে বলছেন, ‘এই যা’। একাধিক বার নায়িকা ‘এই যা’ শব্দ দুটি উচ্চারণ করেন। এরপর পরীমনি একটি ব্লু-লেভেল বিদেশি মদের বোতল নিতে গেলে তার সঙ্গে ব্যবসায়ী নাসির উচ্চবাক্য বিনিময় হয়। এক পর্যায়ে পরীমনি নাসিরের দিকে গ্লাস-প্লেট ছুঁড়ে মারতে শুরু করেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে নাসির চড় বসিয়ে দেন পরীর গালে।

রব উঠেছে, এই চড়ের বদলা নিতেই পরবর্তী নাটকগুলো সাজিয়েছেন পরীমনি। কারণ, তাকে ধর্ষণচেষ্টার কোনো আলামতও এখন পর্যন্ত পাওয়া যায়নি। তাই বোট ক্লাবের ভিডিওগুলো নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পাশাপাশি গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে পরীমনির ভাঙচুরের ঘটনার একটি ফুটেজও ইতোমধ্যে ফাঁস হয়েছে। এছাড়া বনানীর একটি ক্লাবেও নায়িকা ভাঙচুর করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

এদিকে, পরীমনি অপরাধ করলে তাকে কোনো সহায়তা দেয়া হবে না বলে সম্প্রতি সাফ জানিয়ে দিয়েছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেছেন, শিল্পী হিসেবে আমরা পরীমনির পাশে আছি। কিন্তু সে কোনো অপরাধ করলে তার দায়ভার তাকেই নিতে হবে। তার কোনো অন্যায় কাজকে আমরা সমর্থন দেব না। এছাড়া পরীমনির রাত-বিরাতে ক্লাবে ক্লাবে ঘুরে বেড়ানোরও সমালোচনা করেছেন চলচ্চিত্র নেতারা।

ঢাকাটাইমস/২৪জুন/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :