কোটি টাকার অনুদান পেলো বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট জয়ী স্টার্টআপ

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ৩০ অক্টোবর ২০২১, ১৫:২৪ | প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০২১, ১৪:৪৮

দেশ-বিদেশের স্টার্টআপদের অনুপ্রাণিত করতে আয়োজিত প্রতিযোগিতা বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এতে বিজয়ী হয়েছে বাংলাদেশের স্টার্টআপ ‘ওপেন রিফ্যাক্টরি’। আন্তর্জাতিক এই প্রতিযোগিতায় বিজয়ী স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান ১ লাখ মার্কিন ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১ কোটি টাকার অনুদান পেয়েছে।

তরুণ উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত করতে বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের অধীনে উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমি প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প (আইডিয়া) প্রথমবারের মতো আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১।

৩০ অক্টোবর শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভ অডিটরিয়ামে প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানের সভাপতি আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট বিজয়ী স্টার্টআপের নাম ঘোষণা করেন।

এই প্রতিযোগিতা সফলভাবে আয়োজনের জন্য ১২৮টি দেশের প্রচারণা করা হয়। এতে অংশ নেয় বাংলাদেশসহ ৫৭টি দেশের স্টার্টআপ। প্রতিযোগিতায় সাত হাজারেও বেশি ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান স্টার্টআপ বিজয়ী হওয়ার জন্য আবেদন করে। এর মধ্যে বাংলাদেশের একটি স্টার্টআপ জয়ী হয়ে এক লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কার জিতে নেয়।

এছাড়াও দেশি স্টার্টআপদের নিয়ে অনুষ্ঠিত রিয়েলিটি শো থেকে নির্বাচিত ২৬টি এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ের ১০টি স্টার্টআপ এবং দেশ-বিদেশে নির্বাচিত মোট ৩৬টি স্টার্টআপের প্রত্যেকেই পাচ্ছে ১০ লাখ টাকা করে মোট ৩ কোটি ৬০ লাখ টাকার অনুদান।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ভার্চুয়ালে যুক্ত হয়ে বলেন, আমি আশা করবো এই প্রতিযোগিতায় বিজয়ী স্টার্টআপগুলো থেকেই ফেসবুক, অ্যামাজন, আলীবাবার মতো বড় প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলবে।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, তথ্যপ্রযুক্তিতে ইকো সিস্টেম গড়ে তুলতে ২০১৭ সালে আইডিয়া প্রকল্প চালু হয়। এই প্রকল্প থেকেই এই প্রথমবারের মতো বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২১ আয়োজন করা হয়। তরুণ স্টার্টআপদের উৎসাহিত করতে, তাদের আইডিয়াগুলো বাস্তবায়ন করতে এই ধরনের আয়োজন প্রতিবছর করা হবে।

তিনি আরো বলেন, স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম ও এন্টারপ্রেনিয়র সাপ্লাইচেইন তৈরির মাধ্যমে তরুণদের আত্মনির্ভরশীল করতে আইসিটি বিভাগ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক গ্র্যান্ট প্রতিযোগিতার মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মকে উদ্যোক্তা ও উদ্ভাবক হতে অনুপ্রাণিত করবে।

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২১ প্রতিযোগিতায় বিদেশের মোট ২৫৫টি প্রকল্প গৃহীত হয়। সেখান থেকে দুই দফায় বাছাই শেষে নির্বাচন করা হয় সেরা ১০টি আন্তর্জাতিক পর্যায়ের স্টার্টআপ। যারা চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেয়। অন্যদিকে দেশীয় স্টার্টআপগুলোকে যাচাই-বাছাই ও রিয়েলিটি শোয়ের মাধ্যমে ২৬টি স্টার্টআপ বাছাই করা হয়। এছাড়াও আইডিয়া প্রকল্পের পোর্টফলিও স্টার্টআপের সেরা ১০টি স্টার্টআপ চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেয়। এই ৪৬টি স্টার্টআপের মধ্যে একটি স্টার্টআপকে চূড়ান্তভাবে জয়ী করা হয়।

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২১ এর গ্র্যান্ড ফিনালে বক্তব্য দেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব আব্দুল মান্নান, আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক ও যুগ্ম সচিব আব্দুর রাকিবসহ অন্যরা।

(ঢাকাটাইমস/৩০অক্টোবর/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :