এবার প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৮ জানুয়ারি ২০২২, ২০:৫৯

প্রাথমিকের প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড নিশ্চিতের পর এবার সহকারী শিক্ষকরাও ১০ম গ্রেড দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন। এইচএসসি পাসে বিভিন্ন সেক্টরে ১০ম গ্রেড বেতন পেলে, স্নাতক পাসের শিক্ষকরা কেন পাবেন না এমন প্রশ্ন তাদের।

‘প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক ১০ম গ্রেড বাস্তবায়ন সমন্বয় পরিষদ’ এর ব্যানারে শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক ১০ম গ্রেড বাস্তবায়ন সমন্বয় পরিষদের নেতাকর্মী ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে আসা শিক্ষকদের উপস্থিতিতে লিখিত প্রস্তাবনা পাঠ করেন পরিষদের সমন্বয়ক মু. মাহবুবুর রহমান।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষক পদে যোগ্যতার প্রয়োজন হয় স্নাতক সমমান (দ্বিতীয় বিভাগ)। অথচ বেতনগ্রেড ১৩তম। অন্যদিকে সমযোগ্যতায় পুলিশের সাব ইন্সপেক্টররা ১০ম গ্রেডে বেতন পান। এইচএসসি সমমান ডিপ্লোমা পাসে নিয়োগপ্রাপ্ত নার্সদের বেতন ১০ম গ্রেড। এসএসসি সমমানে কৃষি ডিপ্লোমায় নিয়োগপ্রাপ্ত উপ-সহকারী কৃষি অফিসার ১০ম গ্রেডের। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তারা স্নাতক পাসে বেতন পাচ্ছেন ১০ম ও ৯ম গ্রেডে।

এতে আরও বলা হয়, একই কারিকুলাম, একই সিলেবাস ও একই শিক্ষার্থীদের নিয়ে কাজ করা একই বিভাগের পিটিআইসংলগ্ন পরীক্ষণ বিদ্যালয়ে শিক্ষক পদে স্নাতক (দ্বিতীয় শ্রেণি) ও দেড় বছরের ডিপ্লোমা ইন এডুকেশন (ডিইনএড) যোগ্যতায় বেতনগ্রেড ১০ম।

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকদের যোগ্যতা স্নাতক (২য় বিভাগ) সমমান হলেও ১০ম গ্রেড পেতে শুধু আমলাতান্ত্রিক প্রতিবন্ধকতা রয়েছে উল্লেখ করে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক ১০ম গ্রেড বাস্তবায়ন সমন্বয় পরিষদ তাদের বক্তব্যে জানায়, প্রাথমিক শিক্ষকরা কোমলমতি শিক্ষার্থীদের উন্নতজীবনের স্বপ্নদর্শনে উদ্বুদ্ধ করেন। লেখাপড়া শেষ করে মহৎপেশায় নতুন নিয়োগ পাওয়া একজন শিক্ষক ১৩তম গ্রেডে ১১ হাজার টাকা বেতন স্কেলে বিভিন্ন সুবিধা দিয়ে মোট ১৭ হাজার ৬৫০ টাকা পান। মাসিক এ বেতনে কুলিয়ে না উঠতে পেরে অনেক ক্ষেত্রে ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে হতাশা ও কষ্টে জীবন অতিবাহিত করেন।

এর আগে গত ৬ জানুয়ারি সারা দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত করে দ্বিতীয় শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তার পদমর্যাদা দিয়ে হাইকোর্টের রায় বহাল রাখে আপিল বিভাগ। এ রায়ের মাধ্যমে সারা দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত হন।

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এই আদেশ দেন।

এর আগে ২০১৯ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের বেতন স্কেল দশম গ্রেড করাসহ গেজেটেড পদমর্যাদা দেওয়ার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রশিক্ষণবিহীন উভয় ক্ষেত্রেই প্রবেশ পদে বেতন স্কেল ১০ম গ্রেড করাসহ গেজেটেড পদমর্যাদা ২০১৪ সালের ৯ মার্চ থেকে কার্যকর করতে নির্দেশ দেওয়া হয়।

ঢাকাটাইমস/২৮জানুয়ারি/এনএইচ/কারই

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিক্ষা এর সর্বশেষ

ডিগ্রি ১ম বর্ষ পরীক্ষার ফল প্রকাশ

‘শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের সঙ্গে ফিরে এসেছে বাঙালির আত্মমর্যাদা’

ঢাকা ও চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যান

জাবির বাসে সিনিয়রের হাতে জুনিয়র শিক্ষার্থীকে মারধরের প্রতিবাদ

সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার দ্বিতীয় পর্বের প্রবেশপত্র সংগ্রহের অনুরোধ

ঈদের ছুটি শেষে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় খুলছে সোমবার

বাংলাদেশকে পুনর্নির্মাণ করেছেন শেখ হাসিনা

দীর্ঘ ছুটি শেষে সোমবার খুলছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক ড. মুনিরুল ইসলামের ইন্তেকাল

গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা ইনস্টিটিউট পরিদর্শনে উপাচার্য মশিউর

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :