যেকোনোভাবে সরকার টিকে থাকতে চায়: নজরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৭ অক্টোবর ২০২২, ১৯:২৫

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের ইচ্ছে হলো যেকোনোভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকা, আর লুটপাট করে নিজেদের ভাগ্য বদল করা—এমন মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

শুক্রবার (৭ অক্টোবর) বিকালে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির এক বিক্ষোভ সমাবেশে নজরুল ইসলাম খান এ মন্তব্য করেন।

‘নজিরবিহীন বিদ্যুৎ লোডশেডিং, জ্বালানি মূল্য বৃদ্ধি, নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি, গণপরিবহন ভাড়া বৃদ্ধি, পুলিশের গুলিতে নিহত নুরে আলম, আব্দুর রহিম, শাওনের মৃত্যুর প্রতিবাদে’ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির জোন-৪ লালবাগ চকবাজার কামরাঙ্গীরচর থানার আয়োজনে এই কর্মসূচি হয়।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, আমরা যুদ্ধ করে দেশটাকে স্বাধীন করেছিলাম গণতন্ত্রের জন্য। সেই গণতন্ত্র কি আছে? ভোট দেওয়ার কোনো সুযোগ আছে? আমরা যুদ্ধ করেছিলাম যাতে দেশের মানুষ সুখে শান্তিতে বসবাস করতে পারে। কিন্তু যেখানে প্রতিদিন খাদ্যদ্রব্যের দাম বাড়ে, প্রতিনিয়ত পরিবহনের ভাড়া বাড়ে, চিকিৎসার খরচ বাড়ে, এ রকম একটা দেশের জন্য আমরা যুদ্ধ করিনি।

বিএনপির এই নেতা বলেন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি, গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি, তেলের মূল্য বৃদ্ধি, পানির মূল্য বৃদ্ধি, ওষুধের মূল্য বৃদ্ধি, যানবাহনের ভাড়ার বৃদ্ধির প্রতিবাদ করার কারণে আমার ভাই নূরে আলম, শাওন, আব্দুর রহিম, শাওন প্রধান ও আব্দুল আলীমকে খুন করা হলো।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, মানুষ কষ্টে আছে, তার কষ্টের কথা বলছে। আর তার সমাধান না করে যে সরকার মানুষের বুকে গুলি চালায় সেই সরকারের ক্ষমতায় থাকার কোনো অধিকার নেই। সেই সরকারকে আমরা মানি না, এই সরকার জনগণ সরকার নয়। এই সরকারের পরিবর্তে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করাই হচ্ছে আমাদের কাজ। আর যদি সেটা করতে পারি তাহলেই শুধু মানুষের কষ্ট দূর হবে। তাহলে মানুষের গুম খুন বন্ধ হবে।

আওয়ামী লীগ নেতাদের উদ্দেশ করে নজরুল বলেন, আমরা বলিনি আপনারা পদত্যাগ করেন, আমরা ক্ষমতায় বসবো। আমরা বলেছি আপনি পদত্যাগ করেন, অবৈধ সংসদ বাতিল করুন, নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার গঠন করুন। জনগণকে ভোট দেওয়ার সুযোগ করে দেন জনগণ যাকে ভোট দেবে সেই নির্বাচিত হবে।

নজরুল ইসলাম বলেন, এই অবৈধ, ফ্যাসিবাদী, অত্যাচারী, হত্যাকারী সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন নয়। নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া বিএনপি এবং বিরোধী দল কেউ নির্বাচনে যাবে না। সে দাবি আদায়ের জন্য বিএনপি আন্দোলন করছে এবং বিভিন্ন দলের সঙ্গে আলোচনা করছে। আমরা এই সরকারের বিদায় চাই। নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ একটি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই। সেই নির্বাচনে বিজয় হয়ে জনগণের সরকার কায়েম করতে চাই।

সমাবেশে ঢাকা উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমানের, দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, বিএনপি নেতা মীর সরাফত আলী সপু, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, রফিকুল আলম মজনু, ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

(ঢাকাটাইমস/০৭অক্টোবর/এআরডি/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :