সম্মেলন নিয়ে দ্বিধা-বিভক্ত মির্জাপুর বিএনপি

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৭ অক্টোবর ২০২২, ১৯:৫১

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা ও পৌর বিএনপি ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে দ্বিধা-বিভক্ত হয়ে পড়েছেন দলটির নেতাকর্মীরা। একই দিনে দুই জায়গায় দুই অংশের সম্মেলনের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এই নিয়ে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে মিশ্রপ্রতিক্রিয়া বিরাজ করছে।

দ্বিধা-বিভক্ত এক অংশের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির শিশুবিষয়ক সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী এবং অন্য অংশের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সাইদ সোহরাব ও জেলা বিএনপির সাবেক সদস্য ফিরোজ হায়দার খান।

৯ অক্টোবর মির্জাপুর উপজেলা ও পৌর বিএনপির সম্মেলন আয়োজন করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকালে মির্জাপুর প্রেসসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পাল্টা সম্মেলনের ঘোষণা দেন সাইদ সোহরাব ও জেলা বিএনপির সাবেক সদস্য ফিরোজ হায়দার খান।

এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ছাত্রদলের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য রফিকুল ইসলাম, উপজেলা শ্রমিক দলের সাবেক সভাপতি কুব্বত আলী মৃধা, পৌর বিএনপির সাবেক সহসভাপতি সোহরাব হোসেন ও সাবেক যুগ্ম সম্পাদক খন্দকার মোবারক হোসেন প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার মধ্যে ১১টি ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক ও সদস্য সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, ৯ অক্টোবর রবিবার আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী তার নিজ বাসভবনে উপজেলা ও পৌর বিএনপির ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন আহবান করেছেন। এ ব্যাপারে আমন্ত্রণপত্রও বিলি করা হয়েছে।

আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী আহুত এই সম্মেলনের প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির আহবায়ক আহমেদ আযম খান। এতে আরও উপস্থিত থাকবেন ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক বেনজির আহমেদ টিটু, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সম্মানিত সদস্য মো. সাইদ সোহরাব, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক হাসানুজ্জামিল শাহীন প্রমুখ।

এদিকে এই সম্মেলন গঠনতান্ত্রিকভাবে আহবান করা হয়নি এ অভিযোগ তুলে শুক্রবার সংবাদ সম্মেলন করেন সাইদ সোহরাব ও তার অনুসারীরা।

সংবাদ বিকেলে মির্জাপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাইদ সোহরাব বলেন, আমরা চাই দলের সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে উপজেলা বিএনপির সম্মেলন অনুষ্ঠিত হোক। কিন্ত দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের বাদ রেখে আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী একটি পকেট কমিটি করার জন্য তার বাড়িতে সম্মেলনের আয়োজন করেছেন।

তিনি বলেন, অগণতান্ত্রিক উপায়ে আয়োজিত এই সম্মেলন বন্ধে ইতোমধ্যে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের কাছে একটি চিঠি দেয়া হয়েছে। যার অনুলিপি দলের মহাসচিব ও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিবসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে দেয়া হয়েছে। শক্তিশালী উপজেলা বিএনপি গঠনের লক্ষ্যে এই সম্মেলন বন্ধের উদ্যোগ গ্রহণ করা না হলে দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের নিয়ে একই দিন মির্জাপুর সরকারি কলেজ মাঠে সম্মেলনের আয়োজন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সাবেক নেতা ফিরোজ হায়দার খান বলেন, আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী তার পকেট কমিটি করার জন্য তার বাড়ি সম্মেলনের আয়োজন করেছেন। শক্তিশালী একটি কমিটি গঠনের লক্ষ্যে প্রয়োজন আবুল কালাম আজাদের আহুত সম্মেলন প্রতিহত করে উন্মুক্ত স্থানে সম্মেলন করা হবে।

(ঢাকাটাইমস/০৭অক্টোবর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :