কানায় কানায় পূর্ণ পলোগ্রাউন্ড, অপেক্ষা প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১৪:২২ | প্রকাশিত : ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১৪:০৫

বন্দরনগরী চট্টগ্রামের পলোগ্রাউন্ডের জনসভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পৌঁছানোর কথা রয়েছে দুপুর আড়াইটার দিকে। বিকাল তিনটায় দলীয় এই জনসভায় ভাষণ দেওয়ার কথা রয়েছে তার। তবে এরই মধ্যে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে বন্দরনগরীর ঐতিহাসিক এই ময়দান।

প্রধানমন্ত্রীর আগমনে গোটা চট্টগ্রাম নগরীজুড়েই উৎসবের আমেজ। সকাল থেকেই বিভিন্ন উপজেলা, থানা পর্যায় থেকে বাস, অটোরিকশা, নৌকা, স্টিমারসহ নানা বাহনে পলোগ্রাউন্ডের দিকে ঢল নেমেছে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের।

চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ বিশাল এ জনসভার আয়োজন করেছে। এক এক এলাকার নেতাকর্মীরা একেক রঙের টিশার্ট পরে জনসভায় যোগ দিয়েছেন। এর মধ্যে লাল রঙের টিশার্টে পটিয়া, কমলা রঙের টিশার্টে সন্দ্বীপ, গোলাপি রঙের টিশার্টে রাউজানের নেতাকর্মীরা এসেছেন।

আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, প্রধানমন্ত্রীর জনসভা উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর জনসমুদ্রে পরিণত হবে। এই জনসভা থেকে দলীয় প্রধান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও জনগণকে স্মার্ট বাংলাদেশের রূপরেখা দেবেন।

চট্রগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগ ও সর্বস্তরের জনগণ প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী পলোগ্রাউন্ডের জনসভা থেকে চট্টগ্রামের ৩০টি উন্নয়নমূলক প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন বলে জানা গেছে।

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় তিন বছর পর গত ২৪ নভেম্বর যশোরের জনসভার মাধ্যমে আওয়ামী লীগ প্রধান শেখ হাসিনা দেশব্যাপী নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন। এরপরই চট্টগ্রামের এই জনসভায় ভাষণ দিতে যাচ্ছেন শেখ হাসিনা। আগামী ৭ ডিসেম্বর কক্সবাজারে শেখ কামাল স্টেডিয়ামে দলীয় জনসভায় ভাষণ দেবেন শেখ হাসিনা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বন্দরনগরীর বিভিন্ন সড়কে বর্ণাঢ্য তোরণ নির্মাণ এবং প্রধানমন্ত্রীর ব্যানার ও পোস্টার টাঙ্গানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে বিলবোর্ড, ব্যানার, বেলুন, ফেস্টুন এবং পোস্টারে ছেয়ে গেছে জামাল খান, কাজির দেউরি, হালিশহর, লালখান বাজার, টাইগার পাস, দেওয়ান হাট, কদমতলী, নিউমার্কেট, আন্দরকিল্লাসহ নগরীর বিভিন্ন এলাকা।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকালে ভাটিয়ারিতে বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে সামরিক বাহিনীর একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন। তিনি সেখানে ৮৩তম বিএমএ দীর্ঘমেয়াদি কোর্সের রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ পরিদর্শন এবং রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজের সালাম গ্রহণ করেন। এসময় সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

ভাটিয়ারির বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমি থেকে দুপুরে হেলিকপ্টারে চট্টগ্রাম স্টেডিয়ামে আসবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখান থেকে তিনি গাড়িতে করে পলোগ্রাউন্ডে নৌকার আদলে তৈরি ১৬০ ফুট লম্বা সভামঞ্চে ভাষণ দেবেন।

শেখ হাসিনার জনসভার স্থলকে ঘিরে কঠোর নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে। নেতাকর্মীদের সভাস্থলে প্রবেশ করানো হচ্ছে কঠোর তল্লাশিতে। মূল সভাস্থলের আগে আটটি তল্লাশি চৌকি বসানো হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/০৪ডিসেম্বর/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :