হেভিওয়েট কি জনগণের ভোটে না দলের পোস্টে, প্রশ্ন নিক্সনের

ফরিদপুর প্রতিনিধি, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩, ১০:৩৮ | প্রকাশিত : ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩, ১০:১৪

হেভিওয়েট প্রার্থী কি জনগণের ভোটে মাপা হয় নাকি দলের পোস্টে, এমন প্রশ্ন তুলেছেন ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন।

‘হেভিওয়েট প্রার্থীদের চেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী বেশি জনপ্রিয় হলে তাহলে সাধুবাদ জানানো হবে।’

সম্প্রতি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্যের সূত্রধরে নিক্সন এমন প্রশ্ন তোলেন।

মঙ্গলবার ফরিদপুর-৪ আসনের মনোনয়ন যাছাই-বাছাই শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন বলেন, হেভিওয়েট হোক আর হালকাওয়েট হোক, জনগণ যাকে ভোট দেবে সেই নির্বাচিত হবে। নিক্সন বলেন, দল থেকে বলে দেওয়া হয়েছে, কেউ বহিষ্কার হবে না। দল থেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থীদের উৎসাহিত করা হচ্ছে। অতএব আমরা উৎসাহিত হচ্ছি, বহিষ্কারের কিছু নাই।

এদিকে রবিবার ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. আব্দুর রহমান বলেন, দলের কেউ আওয়ামী লীগের নৌকার বাইরে নির্বাচন করতে পারবে না। নির্বাচন করলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আব্দুর রহমানের বক্তব্যের জবাবে নিক্সন চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিষয়ে বলেছেন, হেভিওয়েটদের যদি স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পরাজিত করে বিজয়ী হয়ে আসতে পারে তাহলে দল থেকে তাদের সাধুবাদ জানানো হবে। আর প্রেসিডিয়াম সদস্য বলছেন ব্যবস্থা নেবেন।

নিক্সন বলেন, কেউ নিজের সমস্যার জন্য যদি কোনো সিদ্ধান্ত দেন সেটা তার ব্যক্তিগত কথা। কারণ তার নির্বাচনি এলাকাতেও ইতোমধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী দাঁড়িয়েছে। উনি নিজের আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থীকে থামানোর জন্য এটা বলেছেন কি না এটা আমি বলতে পারবো না, যোগ করেন নিক্সন। নিক্সন চৌধুরী নির্বাচনে জয়লাভ বিষয়ে বলেন, আমি আশাবাদী আগের চেয়ে এবার দ্বিগুণ ভোটে জয়লাভ করবো। তিনি বলেন, আশা করি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচন উপহার দেবেন।

উল্লেখ্য, ফরিদপুর-৪ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ, স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন, তরিকত ফেডারেশনের মাকসুদ আহমেদ গোলাম মাওলা, জাকের পার্টির রবিউল ইসলাম, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির আলমগীর কবির ও বাংলাদেশ কংগ্রেস পার্টির নাজমুন নাহার প্রার্থী হয়েছেন। আয়কর বিবরণী না থাকায় জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. আনোয়ার হোসেনের মনোনয়ন স্থগিত করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/৫ডিসেম্বর/পিএস/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :