কুমিল্লা-৪: জমে উঠেছে নৌকা-ঈগলের কথার লড়াই

​​​​​​​দেবিদ্বার (কুমিল্লা) প্রতিনিধি, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৭:০৪ | প্রকাশিত : ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৫:০০
আ.লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী, জাতীয় পার্টি মনোনীত লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী।

প্রতীক বরাদ্দের পরই সরগরম হয়ে উঠেছে কুমিল্লা-৪ আসনের নির্বাচনি প্রচারণা। দিন রাত প্রচার প্রচারণা চলছে দলীয় ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের। নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই জমে উঠেছে প্রার্থীদের কথার লড়াই। বিশেষ করে নৌকা ও ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থীর কথার লড়াইকে উপভোগ করছেন সাধারণ ভোটারদের মাঝে।

আসনটিতে ১২ জন প্রার্থী থাকলেও প্রচার প্রচারণায় সরব আছেন তিনজন।

এরা হলেন বর্তমান সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রাজী মোহাম্মদ ফখরুল, ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ ও লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ইউসুফ আজগর।

তবে সাধারণ ভোটারদের মতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যেই মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।

স্থানীয়দের মধ্যে বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর নির্বাচন বর্জনের পর প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন ভোটের আশঙ্কা করলেও শেষ পর্যন্ত ভোটের মাঠে একাধিক প্রার্থীর সরব উপস্থিতি ও প্রার্থীদের মধ্যে কথার লড়াইসহ ব্যাপক প্রচার প্রচারণায় উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে এ আসনটিতে।

সম্প্রতি এক উঠান বৈঠকে রাজী মোহাম্মদ ফখরুল বলেন, অনেকেই বলে, আমি নাকি উন্নয়ন করিনি। আমার প্রশ্ন তাহলে উন্নয়ন করল কে? এই যে নতুন রাস্তা দিয়ে হেঁটে এসেছেন এটা করল কে? এই প্যান্ডেলের পিছনে যে চারতলা ভবনটা তা করল কে? তিনি বলেন, যারা বলছে আমি উন্নয়ন করিনি তারা কি করেছে?

অপর এক উঠান বৈঠকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারাদেশে অবাধ ও সুষ্ঠু ভোট হবে। সারা বিশ্ব তাকিয়ে আছে এই নির্বাচনের দিকে। যদি কেউ স্বপ্ন দেখে ভোট কেটে বাক্স ভরে ফেলবেন, তাহলে এটি তাদের দুঃস্বপ্নই হবে।

তিনি বলেন, জনপ্রিয়তা যার বেশি, ভোটে তিনিই নির্বাচিত হবেন। ভয় পাওয়ার কিছু নেই। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে উদ্দেশ্য করে আবুল কালাম বলেন, তারা গুজব ছড়াবে। হুমকি ধামকি দিবে। এসবে কিছুই হবে না। চারদিকে ঈগলের জোয়ার নেমেছে। এই জোয়ারে সকল অপশক্তি হারিয়ে যাবে।

জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী ইউসুফ আজগর জানান, দেবিদ্বারে যে দুজন প্রার্থী আছেন তারা একই দলের। জনগণ এবার পরিবর্তন চায়। জনগণ যদি ভোট দেওয়ার সুযোগ পায় এবং সুষ্ঠু নির্বাচন হয়। তাহলে আমি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী।

তিনি বলেন, বিগত ১৫ বছরে দেবিদ্বারে উল্লেখযোগ্য কোনো উন্নয়ন হয়নি। উপজেলার সব রাস্তা-ঘাটই ভাঙা-চুড়া। অনেক রাস্তা চলাচলের অনুপযোগী।

উল্লেখ্য, কুমিল্লা-৪ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ৭৪ হাজার ৫২৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৯৪ হাজার ২৭৬ এবং নারী ভোটার এক লাখ ৮০ হাজার ২৫০জন। মোট ভোট কেন্দ্র ১১৪ টি।

(ঢাকাটাইমস/২৮ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/পিএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :