ডিআরইউর প্রতিবাদ সমাবেশ

সাগর-রুনি হত্যার তদন্ত নিয়ে ‘কাণ্ডজ্ঞানহীন’ বক্তব্য, আইনমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি

​​​​​​​ঢাকা টাইমস ডেস্ক
| আপডেট : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৯:১২ | প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৩৪

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যার তদন্ত নিয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক কাণ্ডজ্ঞানহীন ও দায়িত্বহীন বক্তব্য দিয়েছেন। এমন বক্তব্য দেওয়ায় আইনমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেছেন সাংবাদিক নেতারা। অবিলম্বে এ হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করে সাংবাদিক নেতারা বলেছেন, ১২ বছরেও মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া অত্যন্ত লজ্জার। তদন্তকারী সংস্থা ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। পিবিআই বা অন্য সংস্থাকে তদন্তের দায়িত্ব দিয়ে অবিলম্বে দোষীদের বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান তারা।

রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সামনে সাগর-রুনি হত্যার বিচার দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে ডিআরইউ। সমাবেশে বক্তারা এসব বলেন।

২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের ভাড়া বাসায় নৃশংসভাবে খুন হন সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনি। এরপর ১২ বছর ধরে এই হত্যার বিচারের দাবিতে আন্দোলন করে আসছে ডিআরইউ। সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার সময় ১০৫ বার পিছিয়েছে। আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি আবারও দিন ধার্য করা হয়েছে।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সৈয়দ শুকুর আলী শুভর সভাপতিত্বে এবং ডিআরইউ সাধারণ সম্পাদক মহি উদ্দিনের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে একাংশের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, মহাসচিব কাদের গনি চৌধুরী, আরেকাংশের সভাপতি ওমর ফারুক ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব শেখ মামুনুর রশীদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজের একাংশের সভাপতি শহীদুল ইসলাম, ডিআরইউর সাবেক সভাপতি শফিকুল করিম সাবু, শাহেদ চৌধুরী, মুরসালিন নোমানী, ডিআরইউর সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু, নূরুল ইসলাম হাসিব, ডিআরইউর বর্তমান সহ-সভাপতি শফিকুল ইসলাম শামীম, বিএফইউজে সহ-সভাপতি মধুসূদন মণ্ডল, ডিআরইউর সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ জামাল, সাইফুল ইসলাম, ডিইউজে সহ-সভাপতি মানিক লাল ঘোষ, ডিআরইউর বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ সাইফুল্লাহ, সাবেক অর্থ সম্পাদক ও মাছরাঙা টিভির প্রধান বার্তা সম্পাদক রাশেদ আহমেদ, ডিআরইউ দপ্তর সম্পাদক রফিক রাফি, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সুশান্ত কুমার সাহা, কল্যাণ সম্পাদক মো. তানভীর আহমেদ, বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন—ক্র্যাবের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, ডিআরইউ কার্যনির্বাহী সদস্য ফারহানা ইয়াছমিন জুঁথী, ডিইউজে সাংগঠনিক সম্পাদক সাঈদ খান, ডিআরইউ সদস্য কুদরাত-ই খোদা, গাজী আবু বকর, আশীষ কুমার দে প্রমুখ।

সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিআরইউর সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. মনোয়ার হোসেন, আপ্যায়ন সম্পাদক মোহাম্মদ ছলিম উল্লাহ (মেজবাহ), কার্যনির্বাহী সদস্য সাঈদ শিপন, রফিক মৃধা, মো. শরীফুল ইসলামসহ সংগঠনের সদস্যরা।

ডিআরইউ সভাপতি সৈয়দ শুকুর আলী শুভ বলেন, সাংবাদিকদের হত্যার বিচার হয় না। অবিলম্বে সাগর-রুনি হত্যার বিচার করতে হবে, দোষীদের বিচারের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। এতদিনেও বিচার করতে না পারায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর যোগ্যতা-দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এ হত্যাকাণ্ডের তদন্ত নিয়ে আইনমন্ত্রীর সাম্প্রতিক দেওয়া বক্তব্য প্রত্যাহার করার দাবি জানান তিনি।

বক্তারা বলেন, সাংবাদিকদের হত্যা করা হলেও তার বিচার হচ্ছে না। সাগর-রুনির হত্যা তদন্ত নিয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক কাণ্ডজ্ঞানহীন ও দায়িত্বহীন বক্তব্য দিয়েছেন। এমন বক্তব্য তিনি দিতে পারেন না। এমন বক্তব্য দেওয়ার জন্য আইনমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি জানান বক্তারা। এছাড়া তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাব ব্যর্থ হলে অন্য সংস্থাকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়ার দাবিও জানানো হয় সমাবেশে। সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়ারও দাবি উঠে।

(ঢাকাটাইমস/১১ফেব্রুয়ারি/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

জাতীয় এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :