গাজীপুরে শতবর্ষের জামাই মৎস্য মেলা

গাজীপুর প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:২৫ | প্রকাশিত : ১৫ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:১৬

গাজীপুরে শতবর্ষের ঐতিহ্যবাহী জামাই মৎস মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৯১০ সাল থেকে প্রচলিত এই মেলায় গাজীপুর জেলা ছাড়াও বিভিন্ন জেলা থেকে হাজার হাজার নারী-পুরুষ যোগ দেন। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিভিন্ন প্রজাতির বড় বড় মাছ নিয়ে আসেন মৎস্য ব্যবসায়ীরা। প্রচলন আছে প্রতিবছর পুঞ্জিকা মতে পৌষের শেষ দিন এই অঞ্চলের জামাইরা এই মেলা থেকে বড় বড় মাছ কিনে শ্বশুর বাড়ি নিয়ে যান।

স্থানীয়রা জানায়, কালীগঞ্জ উপজেলার বিনিরাইল গ্রামের মেলাটি মূলত মাছের মেলা। কিন্তু সবাই এটাকে বলেন জামাই মেলা। আর এই দিনটিকে ঘিরেই এখানে দিনব্যাপী চলে আনন্দ-উৎসব। দিনটির জন্য সারাবছর অপেক্ষায় থাকে উপজেলাবাসী। মাছের এ মেলায় চলে এলাকার জামাইয়ের বড় মাছ কেনার প্রতিযোগিতা। বিনিরাইল এবং এর আশপাশে গ্রামে যারা বিয়ে করেছেন, সেসব জামাই এ মেলার মূল ক্রেতা ও দর্শনার্থী। মেলা ঘিরে এলাকার শ্বশুরদের মধ্যেও চলে এক নীরব প্রতিযোগিতা। কোন শ্বশুর সবচেয়ে বড় মাছটি দিয়ে জামাই আপ্যায়ন করতে পারেন। আবার জামাইরাও চান কত বড় মাছ কিনে শ্বশুরবাড়ি যেতে পারেন।

মেলায় দেখা গেছে, ৪০ কেজি ওজনের একটি কাতল মাছ ঘিরে ক্রেতাদের জটলা। বিক্রেতা দাম হেঁকেছেন ৬৫ হাজার টাকা। দাম নিয়ে চলছে ক্রেতা বিক্রেতার মধ্যে দর কষাকষি। তবে মেলায় ক্রেতার চেয়ে বেশি উৎসুক জনতা। মেলায় রুই, কাতল, বোয়াল, আইড়, চিতল, বাইম, রুপচাদাসহ নানা প্রজাতির সামুদ্রিক মাছ বেচাকেনা হয়। স্বাভাবিক বাজারের তুলনায় মেলায় মাছের দাম একটু বেশি হলেও মাছ কিনে শ্বশুরবাড়ি নিয়ে যেতে পারছেন এতেই খুশি জামাইরা। এবারের মেলায় তিন শতাধিক মাছ ব্যবসায়ী বাহারি মাছের পসরা সাজিয়ে বসেছেন বলে আয়োজক সূত্রে জানা গেছে। মেলায় মাছ ছাড়াও আসবাবপত্র, খেলনা, মিষ্টি ইত্যাদির পসরাও বসেছে।

বিনিরাইলের মাছের মেলার আয়োজক কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলাম নুরু জানান, এই মেলাটি প্রথম অনুষ্ঠিত হতো খুবই ছোট পরিসরে। অগ্রহায়ণের ধান কাটা শেষে পৌষ-সংক্রান্তি ও নবান্ন উৎসবে আয়োজন করা হতো। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এ মেলাটি একটি সার্বজনীন উৎসবে রূপ নিয়েছে।
(ঢাকাটাইমস/১৫জানুয়রি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :