জুমার নামাজে বিধিনিষেধ

কাশ্মীরে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে পুলিশের গুলি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২৪ আগস্ট ২০১৯, ০৯:১৪

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে শুক্রবার জুমার নামাজের পর শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ শুরু হলেও পুলিশ আক্রমণ করলে তা পরে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়। রাজ্যের রাজধাণী শ্রীনগরের সৌরা এলাকায় ওই বিক্ষোভ শুরু হলে বিক্ষোভকারীদের থামাতে ভারতীয় পুলিশ ছররা গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এছাড়া রাজ্যের বড় মসজিদগুলোতে গত শুক্রবারের মতো এদিনও বড় জামায়াতের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা ছিল।

সেখানে উপস্থিত থাকা সাংবাদিকরা অনেককে আহত হতে দেখলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে আহতদের ব্যাপারে কিছু জানানো হয়নি। ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা ও ৩৫-এ ধারা বাতিলের পরের শুক্রবারও সৌরা এলাকায় বিক্ষোভ করেছিল কাশ্মীরবাসী।

২৩ আগস্ট শুক্রবার জুমার নামাজের পর স্বাধীনতাপন্থী কিছু স্লোগান ওঠে। তারপর একটা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ শুরু হয়। সেখানে তখন কয়েক হাজার মানুষ হাজির ছিলেন। গতসপ্তাহের মতোই এদিনের বিক্ষোভ মিছিলও নানা অলি গলি ঘুরে শেষ হয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু হঠাৎই একটা জায়গায় গলির ভেতরে নিরাপত্তা বাহিনী ঢুকতে চেষ্টা করে। তখনই অশান্তি শুরু হয়। পুলিশের সঙ্গে সাধারণ কাশ্মীরীদের সংঘর্ষ চলে দুই ঘণ্টা ধরে। অন্যদিন সন্ধ্যায় কাশ্মীর প্রশাসন একটি বুলেটিন প্রকাশ করলেও শুক্রবার তা করা হয়নি।

এর আগে বৃহস্পতিবার একটি পোস্টার ছেপে সেখানে শুক্রবার বিক্ষোভের ডাক দেওয়া হয়েছিল। সেখানে সবাইকে আহ্বান জানানো হয়েছিল শ্রীনগরে জাতিসংঘের কার্যালয়ের দিকে মিছিল করে যাওয়ার জন্য। হুরিয়ত কনফারেন্সের নামে ওই পোস্টার পড়েছিল।

কিন্তু জাতিসংঘের কার্যালয়ের দিকে যাওয়ার একটি বাদে সব রাস্তাই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল সকাল থেকেই। সেখানে ব্যাপক নিরাপত্তার কড়াকড়ি করা হয়েছিল।

এছাড়া এই শুক্রবারও কাশ্মীরের বড় মসজিদগুলোতে জুমার নামাজের বড় জামায়াতের অনুমতি দেওয়া হয়নি। সোপিয়ান, কুলগাম, বারামুল্লা, কুপওয়াড়া বা অনন্তনাগ এলাকাতেও একই ধরনের নিষেধাজ্ঞা চালু রয়েছে। মাইক বাজানোরও অনুমতি নেই কোনো মসজিদে।

ঢাকা টাইমস/২৪আগস্ট/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :