আর্থিক ‘ক্ষমতা’ না থাকায় ববিতে ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত

তানিয়া আক্তার, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০১৯, ২৩:৩৭ | প্রকাশিত : ১৩ অক্টোবর ২০১৯, ২১:৫৯
  • ভিসি নেই ট্রেজারার নেই
  • আর্থিক ক্ষমতা না থাকায় অচলাবস্থা
  • কবে নাগাদ ভর্তি পরীক্ষা বলতে পারছেনা কেউ
  • ১২শ আসনের বিপরীতে এবার পরীক্ষার্থী প্রায় ৪০ হাজার

বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থিক বিষয় পরিচালনার ক্ষমতা রয়েছে উপাচার্য আর ট্রেজারারের। তবে গুরুত্বপূর্ণ পদ দু’টি ফাঁকা বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে। আর আর্থিক ক্ষমতা না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়টির ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। এমতাবস্থায় আগামী ১৮ অক্টোবর থেকে ভর্তি পরীক্ষা নিতে পারছে না ববি। আর উপাচার্য নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত বলাও যাচ্ছে না কবে নাগাদ ভর্তি পরীক্ষা হবে।

রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কমিটির সমন্বয়ে পরীক্ষা সম্পর্কিত একটি সভায় ভর্তি পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে ববি ডিন অধ্যাপক ড. মুহসীন উদ্দীন বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষা চালাতে হলে বিশ্ববিদ্যালয়ে আর্থিক ক্ষমতাধর ব্যক্তি দরকার। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থিক বিষয় যারা পরিচালনা করে থাকেন তাদের পদ ফাঁকা। যে কারণে ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এক কথায় আর্থিক ক্ষমতা না থাকায় ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে ঢাকা টাইমস শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিষ্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি এ ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিশ্ববিদ্যালয়) মো. আবদুল্লাহ আল হাসান চৌধুরীর সঙ্গে কথা বলতে বলেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিশ্ববিদ্যালয়) মো. আবদুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘আমি এ বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত নই। তাই এ ব্যাপারে কিছু বলতেও পারছি না।’

এদিকে গুরুত্বপূর্ণ বেশ কয়েকটি পদ শূন্য হয়ে যাওয়ায় ববিতে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। চলতি বছর স্বাধীনতা দিবসে শিক্ষার্থীদের বাদ দিয়ে আমন্ত্রিত অতিথিদের নিয়ে চা চক্রের আয়োজন করেন উপাচার্য এস এম ইমামুল হক। শিক্ষার্থীরা এর প্রতিবাদ জানালে উপাচার্য তাদের ‘রাজাকারের বাচ্চা’ বলে গালি দেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে উপাচার্য ইমামুল হককে ব্যক্তিগত ও প্রশাসনিক প্রয়োজনে ১১ এপ্রিল থেকে ২৬ মে পর্যন্ত বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠানো হয়।

এই সময়কালে ট্রেজারার এ কে এম মাহবুব হাসান নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত হিসেবে উপাচার্যের রুটিন দায়িত্ব পালন করবেন বলে আদেশে বলা হয়। ২৬ মে উপাচার্যের কার্যকালের মেয়াদও (চার বছর) শেষ হয়েছে। সেই থেকেই ট্রেজারার মাহবুব উপাচার্যের অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করে আসছেন। গত সোমবার ট্রেজারার পদে তার মেয়াদও শেষ হয়েছে।

এছাড়া নৈতিক স্খলনের দায়ে গত ৯ এপ্রিল রেজিস্ট্রার মনিরুল ইসলামকে চাকরিচ্যুত করা হয়। এরপর রেজিস্ট্রারের অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা ড. হাসিনুর রহমান ছুটি নিয়ে ১১ মে বিদেশে পাড়ি জমিয়েছেন। এরপর থেকে সহকারী রেজিস্ট্রার সানজিয়া খানম রুটিন দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তিনিও আগস্ট মাস থেকে মাতৃত্বকালীন ছুটিতে রয়েছেন। তার পরিবর্তে আরেক সহকারী রেজিস্ট্রার মো. মিলন ওই পদে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এ ছাড়া গত সপ্তাহে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক এ কে এম ফজলুল হকের মেয়াদ শেষ হয়েছে। কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান এবং বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিনের পদ জুন মাস থেকেই শূন্য। দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য ওই দুটি পদের দায়িত্বে ছিলেন।

পরীক্ষা সম্পর্কিত সভা শেষে সভা শেষে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘আগামী ১৮ ও ১৯ তারিখে অনুষ্ঠিতব্য বরিশাল বিশ্ব বিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষা বর্ষের স্নাতক (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষা অনিবার্য কারণবশত সময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষা পুনঃনির্ধারিত তারিখ পরবর্তীতে যথা সময়ে বিশ্ব বিদ্যালয়ের ওয়েব সাইটের মাধ্যমে জানানো হবে।’

সূত্র মতে, তিনটি ইউনিটে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে চার বছর মেয়াদি স্নাতক (সম্মান) কোর্সের প্রথমবর্ষে ভর্তি আগামী ১৮ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিলো। ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রায় দেড় হাজার আসনের অনুকূলে আবেদন জমা পড়েছে ৪০ হাজারের বেশি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ববি’র এক শিক্ষক ঢাকা টাইমসকে বলেন, উপাচার্য কিংবা ট্রেজারার ও রেজিস্ট্রার ছাড়া ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করা সম্ভব নয়। কারণ প্রশ্নপত্র তৈরিসহ বেশ কিছু আনুষ্ঠনিকতা রয়েছে। যা উপাচার্য ছাড়া সম্পন্ন করা সম্ভব হচ্ছে না। তাই ভর্তি পরীক্ষা স্থাগিত করা হয়েছে। আগামী উপাচার্য নিয়োগ হওয়ামাত্র ভতি পরীক্ষার সময় সূচি তৈরি করা হবে।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর অনলাইনে শিক্ষার্থী ভর্তির আবেদন ফরম পূরণের মাধ্যমে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হয়। ওই সময়ের শিক্ষামন্ত্রী  নুরুল ইসলাম নাহিদ টেলিটক মোবাইল ফোনে এসএমএস পাঠিয়ে একজন ছাত্রের ভর্তির আবেদন ফর্ম গ্রহণ করে ভর্তি কার্যক্রম শুরু করেছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/১৩অক্টোবর/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :