স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃত্ব ঘিরে আলোচনায় টিপু-বাদশা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ২০:০২

আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের শীর্ষ দুই নেতা কে হবেন তা নিযে এরই মধ্যে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে। আলোচনা চলছে কয়েকজনের নাম নিয়েও। তবে সেই দৌড়ে এগিয়ে আছেন সংগঠনটিরই দুই নেতা শেখ সোহেল রানা টিপু ও সাজ্জাদ সাকিব বাদশা। তারা এক-এগারোর সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের দায়িত্বে ছিলেন।

দুঃসময়ে পরীক্ষিত, ক্লিন ইমেজ আর ছাত্রলীগের রাজনীতি করে আসা নেতৃত্বের হাতেই এবার স্বেচ্ছাসেবক লীগের দায়িত্ব আসছে বলে একাধিক সূত্র জানিয়েছে। সূত্রগুলো বলছে, যোগ্য, সাংগঠনিক, বিতর্কমুক্ত কমিটি গঠন হোক এমন প্রত্যাশা নীতি নির্ধারকদের।
২০১২ সালে ১১ জুলাই স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটিতে সভাপতির দায়িত্ব পান মোল্লা আবু কাওছার আর সাধারণ সম্পাদক হন পঙ্কজ দেবনাথ। দলের ভেতর ও বাইরে জোর আলোচনা এই নেতৃত্ব পরিবর্তনের আভাস দিয়েছে।

এরই মধ্যে কাঙ্ক্ষিত পদ পেতে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন নেতারা। দিনরাত সময় দিচ্ছেন বিভিন্ন সাংগঠনিক কর্মে। যোগাযোগও রক্ষা করছেন তারা। ক্যাসিনো-কাণ্ডের পর বিতর্কিত অনেক নেতাই এখন গা-ঢাকা দিয়েছেন আর ত্যাগী নেতারা আছেন মাঠে সক্রিয়।

আগামী ১৬ নভেম্বর স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে ১১ ও ১২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে সংগঠনটির ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তরের সম্মেলন। পদপ্রত্যাশীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সংগঠনটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদের লড়াইয়ে এক ডজনেরও বেশি নেতা পদপ্রত্যাশা করছেন। তারা নিজেরাও চান সংগঠনের নেতৃত্বের গুরু দায়িত্ব যে-ই পান, তিনি যেন স্বচ্ছ ভাবমূর্তি আর সাংগঠনিক দক্ষ হন।

এবার স্বেচ্ছাসেবক লীগের শীর্ষ দুটি পদের জন্য আলোচনায় থাকা শেখ সোহেল রানা টিপু আওয়ামী ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। ১/১১তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মুক্তির আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালনকারী এই নেতা বর্তমানে সংগঠনটির সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্বে আছেন। দলের জন্য ত্যাগী, দুঃসময়ের পরীক্ষিত, ক্লিন ইমেজ আর কর্মীবান্ধব এক নেতা হিসেবে পরিচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি টিপু। গত সংসদ নির্বাচনে তরুণ নেতা হিসেবে এমপি মনোয়নের দৌড়েও আলোচনায় ছিলেন তিনি।  

শেখ সোহেল রানা টিপু বলেন, ‘স্বেচ্ছাসেবক লীগে নেতৃত্ব পাওয়ার প্রধান মানদণ্ড হোক ক্লিন ইমেজ, ত্যাগী মনোভাব, সাংগঠনিক দক্ষতা। জাতির পিতার আদর্শে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী হাসিনার নির্দেশে মানুষের জন্য রাজনীতি করি। এই ধারা অব্যাহত থাকবে।’

আলোচনায় থাকা সাজ্জাদ সাকিব বাদশাও গত সংসদ নির্বাচনের তরুণ নেতা হিসেবে মনোনয়নের দৌড়ে আলোচনায় ছিলেন। স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃত্ব নিয়ে ঢাকা বিশ্বদ্যিালয় ছাত্রলীগের এই সাধারণ সম্পাদকের নামও জোর আলোচনায় আছে।

টিপু-বাদশা ছাড়াও স্বেচ্ছাসেবক লীগের বর্তমান সহ-সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, সহ-সভাপতি মঈন উদ্দীন মঈন, আফজালুর রহমান বাবু, ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল হাসান জুয়েলসহ প্রায় এক ডজন নেতা আলোচনায় আছেন।

আওয়ামী লীগের এক নেতা বলেন, সব সহযোগী সংগঠনে শীর্ষ পদে নতুন নেতা আসছেন। ছাত্রলীগের সাবেক অর্ধশত নেতার খোঁজখবর নেওয়ার কাজ চলছে। রাজনীতিতে ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা কতটুকু সফল ও দায়িত্ব পালনকালে কতটুকু সমালোচনামুক্ত ছিলেন এসব বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

(ঢাকাটাইমস/১৬অক্টোবর/এএ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :