এবারও সেরা করদাতার আসনে জর্দা ব্যবসায়ী কাউছ মিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:০৫ | প্রকাশিত : ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:১৯

হাকিমপুরী জর্দার মালিক মোহাম্মদ কাউছ মিয়া এবারও দেশের সেরা করদাতা হয়েছেন। দেশের নামীদামী সব শিল্পগোষ্ঠির কর্ণধারদের টপকে টানা নবমবারের মতো এ অবস্থান ধরে রেখেছেন তিনি। আর সেরা করদাতা হওয়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কাছ থেকে সম্মাননা ও ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন তিনি।

গতকাল বৃহস্পতিবার র‌্যাডিসন হোটেলে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের উপস্থিতিতে জমকালো এক অনুষ্ঠানে সেরা করদাতা হিসেবে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ নির্বাহীদের হাতে ১৪১টি ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া সেরা করদাতা হওয়া কাউছ মিয়াকে তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে মঞ্চে ডাকেন। এসময় উপস্থিত সকলেরই মনোযোগ কাউছ মিয়ার দিকে।

মঞ্চে এসে কাউছ মিয়া অতীতের স্মৃতিচারণ করে ব্যবসায়ী হিসেবে তার অভিযাত্রার ঝাঁপি খুলে দেন।  শোনান পঞ্চাশের দশকে মায়ের দেয়া মাত্র আড়াই হাজার টাকা নিয়ে কিভাবে ব্যবসা শুরু করেন।

বড় ব্যবসায়ী হিসেবে প্রতিষ্ঠার কথা বলতে গিয়ে তিনি জানান, ব্যবসার একেবারে শুরু থেকেই অদম্য সাহস আর কঠোর পরিশ্রমই ছিল তার অন্যতম পুঁজি। ব্যবসায়ী হিসেবে নানা চড়াই উৎরাই পার হয়ে যেখানে হাত দিয়েছেন সেখানেই সফলতা পেয়েছেন।

কাউছ মিয়া ব্যবসা শুরু করেছিলেন চাঁদপুরে। সেখানে ছিল তার স্টেশনারী দোকান। পরে ধীরে ধীরে তার ব্যবসা বাড়তে থাকলে তিনি চলে আসেন নারায়ণগঞ্জে। একপর্যায়ে শুরু করেন তামাকজাত বিভিন্ন পণ্যের ব্যবসা। প্রথমে একটা ছোট কারখানা দিয়ে বাজারে ছাড়লেন ‘শান্তিপুরী জর্দা’। পরে ১৯৯৬ সাল থেকে ‘হাকিমপুরী জর্দা’ নামে চলছে তার জর্দার ব্যবসা।

এনবিআর সূত্র মতে, এবার সেরা করদাতা হওয়ার দৌড়ে ছিলেন অন্য একজন। এনবিআর চেয়ারম্যান সেকথা আগেই জানিয়েছিলেন। আর একথা জানতে পেরে সেরা করদাতার তালিকা প্রকাশ করার আগেই কাউছ মিয়া অতিরিক্ত কর দিয়ে আবার নিজের নাম সবার ওপরে নিয়ে আসেন।

অনুষ্ঠানে প্রসঙ্গটির অবতারণা করে কাউছ মিয়া বলেন, তিনি দেশের অর্থনীতিকে আরও সামনে এগিয়ে নিতেই বেশি করে কর দিয়ে যাচ্ছেন। অন্যদেরও কর দেওয়ার বিষয়ে আরও উৎসাহী হওয়ার পরামর্শ দেন এই ব্যবসায়ী।

(ঢাকাটাইমস/১৫নভেম্বর/এনআই/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :