ক্যানসার প্রতিরোধে ঢাকায় প্রথম আন্তর্জাতিক সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২০:৪৮ | প্রকাশিত : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২০:২১

ক্যানসার প্রতিরোধে রাজধানী ঢাকায় প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো কোনো আন্তর্জাতিক সম্মেলন।

শুক্রবার কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে দেশি-বিদেশি চিকিৎসক এবং ক্যানসার সার্ভাইভারদের অংশগ্রহণে এ সম্মেলন হয়। সম্মেলনে আলোচকরা, ক্যানসার প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধি ও জীবনযাত্রায় কিছু ঝুঁকিপূর্ণ আচরণ পরিবর্তনের বিষয়ে জোর দেন।

ক্যানসার অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ সম্মেলনের আয়োজন করে। বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব হেল্থ সাইয়েন্সেস এর পাবলিক হেলথ ফ্যাকাল্টি ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অনকোলোজি বিভাগ সহ আয়োজক হিসেবে অংশ নেয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব হেলথ সাইন্সেস এর উপাচার্য প্রফেসর ডা. ফরিদুল আলম।

তিনি বলেন, ‘অসংক্রামক ব্যাধির মধ্যে ক্যান্সার অন্যতম। আন্তর্জাতিক ক্যানসার গবেষণা প্রতিষ্ঠানের এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী ধারণা করা হয়, বর্তমানে বাংলাদেশে প্রতিবছর গড়ে প্রায় ১ লাখ ৫০ হাজারের অধিক মানুষ ক্যানসারে আক্রান্ত হচ্ছেন এবং গড়ে প্রায় লক্ষাধিক মানুষ ক্যান্সারে মৃত্যুবরণ করেন। তবে প্রকৃত সংখ্যা আরও বেশি হবে বলে ধারণা করা যায়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এক হিসেব মতে আগামী ১০ বছরে এ সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ ছাড়িয়ে যাবে।’তাই ক্যানসার প্রতিরোধে সমাজের সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট ক্যানসার চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এম এ হাই। তিনি বলেন, ‘এক তৃতীয়াংশ ক্যানসার প্রতিরোধযোগ্য এবং তা আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাত্রার কিছু ঝুঁকিপূর্ণ আচরণ পরিবর্তনের মাধ্যমেই করা সম্ভব। অথচ সচেতনতার অভাবে প্রতিরোধযোগ্য ক্যানসারের হার ক্রমশ বেড়েই চলেছে।’তাই তিনি সমাজের সর্বস্তরে ক্যানসার সচেতনতার বার্তা পৌঁছে দেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাঢা মেমোরিয়ার সেন্টার মুম্বাহ এর ক্যানসার প্রতিরোধ বিভাগের প্রধান প্রফেসর ডা. গোরভী মিশ্রা। তিনি বলেন, ভারত ও বাংলাদেশের ক্যানসার রোগের চিত্র প্রায়ই একই ধরনের। আশা করছি ভবিষ্যতে ক্যান্সার প্রতিরোধে আমরা একসঙ্গে কাজ করতে পারব।

এছাড়া অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন দেশ বরেণ্য ইউরো-অনকোলজিস্ট প্রফেসর ডা. এম এ সালাম, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব হেলথ সাইন্সেস এর নন কম্যুনিক্যাবল ডিজিসেস বিভাগের প্রধান ডা. মিথিলা ফারুকী এবং ক্যানসার অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের ডা. মোহাম্মদ মাসুমুল হক।

(ঢাকাটাইমস/০৭ফেব্রুয়ারি/এসএস/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :