চতুর্থ পর্ব

করোনার দিনপঞ্জি: চামামার সঙ্গে আলাপ

সালাহ্ উদ্দীন পল্লব
 | প্রকাশিত : ৩০ মার্চ ২০২০, ১৩:০০

#চামামা_কোয়ারেন্টাইন_ডে_০৪

সকাল থেকে কোন কিছুই ভালো লাগছিলো না। এভাবে ঘরে বসে আর কত? কিন্তু সময়টাও তো ভালো না। তাই চামামা কে কল দিলাম।

: হ্যালো চামামা, কোথায় তুমি?

: আরে মামু কিরটিব মামু! আমি আমার বাড়ির সাম্নের পুস্কুনির পাড়ে মুবাইল খুজি!

: তোমার বাড়ির সামনে তো পুকুর নেই।

: তাইলে মিয়া জিগান ক্যান কই আছি? কি হইছে ঘরের ভিত্রে মজা লাগতাছে না?

: আর বলোনা! এঘর ওঘর করে করে টায়ার্ড হয়ে গেছি। ঘরের মেঝেতে কতগুলো টাইলস লাগানো আছে তাও গোনা হয়ে গেছে। কি করি বলোতো?

: আইচ্ছা তাইলে আমি আম্নেরে কয়ডা প্রশ্ন জিগাই, আম্নের মাতা খুলবো!

: হুম ঠিক! বলো..

: ঘুস টাকা কারে কয়?

: কি আবার.. কাজের বিনিময়ে নেয়া টাকা?

: না! হয় নাই। সাইধ্যের বাইরের খরচের জইন্য যেই ইনকাম তারে ঘুস কয়। আইচ্ছা কনতো আমিরা ক্যান স্বপ্ন দেহি?

: উমমম সাইন্টেফিকালি.....

: ধুরু মিয়া! আমরা স্বপ্ন দেহি বাস্তবতা দেখতে দেখতে অসইয্য হইয়া!

: সেকি! বাস্তবতার আবার কি হলো?

: তাইলে তো আবার গল্প কওন লাগবো! এক নস্ট পোলা নতুন বিয়া করছে। নিজেরে সৎ আর ভালো দেখাইতে বাসর রাইতে বউরে জিগাইলো, আইচ্ছা? আইজকা রাইতে যে আম্নে আমার লগে সারারাইত থাকবেন.... এইডা আম্নের বাড়ির সবাই জানে তো?

: তারপর?

: গল্প শ্যাষ!

: এটা কি হলো?

: মামু এইডাই এখন দ্যাশের বাস্তবতা! পাব্লিক আসলে কি চায় আর কি করে কি কয় এই সবের মইধ্যে কুনু মিল নাই! নাইলে কুরনা রুগ নিয়া যখনই ওই সাব্রিনা ম্যাডাম কতা কয় তখন পাব্লিক হের কতা না শুইন্যা শাড়ি গোনে! মানুষের জইন্য হাস্পাতাল বানাইবো আর পাব্লিক ওইটা বন্ধ করতে আসে! ঘরে থাকতে কইলে ঘরে থাহে না! করুনা রুগীরে কবরস্তানে জায়গা দিতে চায় না! গরীব মানুষগুলারে সাহাইয্য করার সময় মুখে মাস্ক পরবেন আর ক্যামেরা দেখলেই থুতনির নিচে নামাইয়া কতা কইবেন....এডির কুনো মানে আছে? সবতের আসলে আম্নের মুতন দশা। কি চান সেইডার ঠিক নাই হুদাই পেরেশানি। কি মিছা কইলাম?

: ইয়ে মানে চামামা, আমার একটা কাজ মনে পরে গেছে... হ্যা... পরে কথা হবে!

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :