রোগপ্রতিরোধ করে কাঁচা হলুদ

স্বাস্থ্য ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১২ আগস্ট ২০২০, ১৫:২৫ | প্রকাশিত : ১২ আগস্ট ২০২০, ১৫:২২

‘মিরাকল হার্ব’ বা অলৌকিক ভেষজ হিসেবে পরিচিত কাঁচা হলুদ। হলুদ আমাদের কাছে অত্যন্ত দরকারি একটা মশলা, রোজকার রান্নায় হলুদ না দিলে রান্নাটাই যেন কেমন অসম্পূর্ণ মনে হয়।

বাঙালির হেঁশেলে তো বটেই, শুধু বাঙালিই বা কেন, গোটা ভারত, বা বলা ভালো প্রায় গোটা এশিয়ার রান্নাতেই হলুদ একটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও জরুরি উপাদান।

হলুদ রান্নায় রঙ তো আনেই, তাছাড়া স্বাদ বা যাকে আমরা বলি ‘ফ্লেভার’ তার ক্ষেত্রেও হলুদ খুবই প্রয়োজনীয় একটা জিনিস। তবে শুধু রান্নার কাজেই নয়, হলুদের আরও অনেক গুণই আছে, যার বেশিরভাগই আমাদের কাছে অজানা।

হলুদে প্রচুর পরিমাণ ফাইবার, পটাশিয়াম, ভিটামিন বি-৬, ম্যাগনেশিয়াম ও ভিটামিন সি থাকে ও কারকিউমিন নামক রাসায়নিক থাকে যা বিভিন্ন রোগের হাত থেকে আমাদের বাঁচায়। সকালে ঘুম থেকে উঠে কাঁচা হলুদ খেলে যে ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়ে, খাবার ঠিকমতো হজম হয়, এসব কথা তো আমরা বহুদিন ধরেই জেনে আসছি। আসুন, আজ জেনে নেওয়া যাক কাঁচা হলুদের অসংখ্য এমন কিছু গুণের কথা, যার বেশিরভাগটাই আপনার কাছে হয়ত অজানা।

এছাড়া ত্বকের জন্য হলুদ তো সবসময় ভাল। ত্বকের ট্যান দূর করে। ব্রণ কমায়। এমনকি হলুদ খেলে রক্ত পরিস্কার হয়।

কাঁচা হলুদের রয়েছে একাধিক গুণ। যা অনেক রোগের নিরাময় করে সহজেই। হলুদ বাড়তি ওজন বা মেদ ঝরাতে সাহায্য করে। হলুদে থাকা কারকিউমিন মেদ ঝরায়। সকালে ঘুম থেকে উঠে কাঁচা হলুদ ও সামান্য মধু মিশিয়ে খেয়ে নিন।

কাঁচা হলুদের সঙ্গে দুধের সর মিশিয়ে মুখে লাগান। বলি রেখা দূরে যাবে।

সর্দি-কাশিতেও দারুণ কাজ দেয় কাঁচা হলুদ। কাশি কমাতে এক টুকরো হলুদ মুখে রাখুন। তারপর চিবিয়ে খেয়ে নিন। কাশি কমবে। এছাড়া এক গ্লাস গরম দুধে হলুদের গুঁড়ো, গোলমরিচ গুঁড়ো মিশিয়ে খান। কমবে সর্দিও।

গা হাত পায়ে ব্যথা থেকেও মুক্তি পেতে পারেন নিয়মিত কাঁচা হলুদ খেলে।

এছাড়া ত্বকের জন্য হলুদ তো সবসময় ভাল। ত্বকের ট্যান দূর করে। ব্রণ কমায়। এমনকি হলুদ খেলে রক্ত পরিস্কার হয়।

(ঢাকাটাইমস/১২আগস্ট/আরজেড/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :