সভা করতে পারেনি আজিজ কো-অপারেটিভের কথিত কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৯:৪৭

প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞায় আজিজ কো অপারেটিভ কমার্স অ্যান্ড ফাইন্যান্স ব্যাংক লিমিটেডের কথিত কমিটি পূর্বনির্ধারিত সভা করতে পারেনি। স্থান পরিবর্তন করে একটি হোটেলে সমাবেশ করতে চাইলেও ব্যর্থ হয়েছে তারা।

শনিবার সকাল ৯টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আজিজ কো-অপারেটিভের ব্যানারে কথিত ম্যানেজার ও গ্রাহক সমাবেশ ডাকা হয়।

এই সমাবেশ আহ্বানকারীদের অবৈধ ও ভুয়া উল্লেখ করে শনিবারের সমাবেশে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে তার জন্য বর্তমান কমিটি কোনো দায় নেবে না বলে শাহবাগ থানায় বর্তমান পরিচালনা পর্ষদ সেক্রেটারি ও সিইও হারুন-অর-রশিদ মজুমদার একটি আবেদন করেন। ওই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রাতেই ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশনায় শাহবাগ থানা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কায় এই সমাবেশ করতে না দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

শাহবাগ থানার ওসি মামুনুর রশিদ বলেছেন, ডিএমপি থেকে আমাদের কাছে নির্দেশনা চাওয়া হয়েছিল। আমরা খোঁজখবর নিয়ে দেখেছি শনিবার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে মিটিং আহ্বানকারীদের কোনো বৈধতা নেই। এছাড়া এখানে কোনো বিশৃঙ্খলা ঘটে তার দায় বর্তমান কমিটির নেবে না বলে আমাদের কাছে একটি আবেদন এসেছিল। যে কারণে আমরা শনিবারের আজিজ কো- অপারেটিভের কোনো সভা সমাবেশ করতে দেইনি।

এদিকে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে মিটিং করতে ব্যর্থ হয়ে ভেন্যু পরিবর্তন করে কাকরাইলে ডিপ্লোমায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ মিলনায়তনে সভা-সমাবেশ করার চেষ্টাও করছে কথিত এই কমিটি।

রমনা থানার ওসি মনিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, যেহেতু তাদের সমাবেশ শাহবাগ থানা করতে দেয়নি, ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সে কোনো প্রোগ্রাম আমরা করতে দেব না এটা স্বাভাবিক। তিনি আরও বলেন, আজিজ কো অপারেটিভ এর বৈধ কমিটি গত শুক্রবার আমাদের অনুমতি নিয়ে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে একটি মিটিং করেছে।

এদিকে শনিবার সকালে পূর্ব নির্ধারিত স্থানে সমাবেশ করতে পারেনি কথিত এই কমিটি। শনিবার সকালে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে দায়িত্বপ্রাপ্ত শাহবাগ থানার এসআই শামসুর রহমান বলেন, সকালে আজিজ কো-অপারেটিভের কিছু লোক সভাকক্ষে ঢোকার চেষ্টা করে। আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানালে তারা দ্রুত স্থান ত্যাগ করে। এখানে কোনো সমাবেশ করতে দেয়া হয়নি।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি আজিজ কো অপারেটিভের নামে একটি কমিটি করে ব্যাপক চাঁদাবাজি ও প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে প্রেম কুমার মন্ডল ও আজিজ কো অপারেটিভ থেকে বহিষ্কৃত সমবায় অধিদপ্তর থেকে প্রাথমিক সদস্যপদ হারানো এস এম হারুনার রশিদসহ প্রতিষ্ঠান থেকে বহিষ্কৃত কয়েকজনের বিরুদ্ধে। এসএম হারুনের নামে সম্প্রতি আদালতে প্রতারণার অভিযোগে মামলা হয়েছে। যার তদন্ত করছে রমনা থানা। এছাড়া রমনা থানায় আজিজ কো-অপারেটিভের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সমবায় অধিদপ্তরের করা মামলায় এস এম হারুন অন্যতম আসামি। যে মামলাটি পরে দুদকে হস্তান্তরিত হয়।

(ঢাকাটাইমস/১৯সেপ্টেম্বর/আরএ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

অর্থনীতি এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :