হত্যার পর লাশে আগুন: আরও একজন গ্রেপ্তার

লালমনিরহাট প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১২:৪৮ | প্রকাশিত : ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১১:১৯
হত্যার পর শহিদুন্নবী জুয়েলের লাশে আগুন দেয়া হয়। ইনসেটে জুয়েল

কোরআন অবমাননার গুজব ছড়িয়ে লালমনিরহাটের পাটগ্রামে মো. শহিদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে হত্যার পর লাশে আগুন দেয়ার ঘটনায় আরও একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তার নাম ফরিদুল ইসলাম।

মঙ্গলবার দিবাগত রাতে জেলার বুড়িমারী বাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীটি। এ নিয়ে চাঞ্চল্যকর ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মোট ৩৯ জনকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ।

বুধবার ফরিদুলকে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ।

কোরআন অবমাননার গুজব ছড়িয়ে গত ২৯ অক্টোবর পাটগ্রামের বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের ভেতরে মো. শহিদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এরপর লাশ লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কের ওপর নিয়ে তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়।

বর্বরোচিত ওই হত্যাকাণ্ডের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে। হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের ধরতে সাঁড়াশি অভিযানে নামে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

এ ঘটনায় তিনটি মামলায় এজাহারনামীয় ১১৪ আসামি এবং অজ্ঞাত শত শত আসামির মধ্যে এখন পর্যন্ত ৩৯ জন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ধরা পড়েছেন। তাদের মধ্যে ১৩ জন বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে আছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িত বাকিদের ধরতে পুলিশের অভিযান এখনো অব্যাহত আছে।

এদিকে প্রায় দুই মাস আগের এই ঘটনায় গ্রেপ্তার আবু কালাম ও জিএম মানিকের রিমান্ড শুনানি হবে আজ (বুধবার)।

চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকোণ্ডের ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি আবুল হোসেন ও মসজিদের খাদেম জোবেদ আলীসহ চারজন স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

ঢাকাটাইমস/২৫নভেম্বর/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :