ভৈরবে ট্রেন থেকে পড়া নারী এখনও অজ্ঞান

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৮:৪০

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে চলন্ত ট্রেন থেকে ব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার সময় ছিটকে নিচে পড়েন সাবিনা ইয়াসমিন নামে এক নারী। তিনি বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার জ্ঞান এখনো ফেরেনি।

আহত সাবিনা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার চরনারায়ণপুর গ্রামের বাসিন্দা। তার স্বামী মিলন মারা গেছেন। সাবিনা ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন।

এ ঘটনায় নয়জনকে আটক করেছে পুলিশ। তাদেরকে বৃহস্পতিবার বিকালে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, কর্মস্থলে ফেরার জন্য গতকাল চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী আন্তনগর মহানগর গোধূলি ট্রেনের যাত্রী ছিলেন তিনি। ট্রেনে ওঠেন আখাউড়া থেকে। রাত পৌনে নয়টার দিকে ভৈরব স্টেশনে ট্রেনটি যাত্রাবিরতি দিয়ে আবার ছেড়ে গেলে ধীরগতিতে ট্রেনটি প্ল্যাটফর্ম অতিক্রম করে। ওই সময় সাবিনা দুই কামরার সংযোগস্থলে দাঁড়িয়ে ছিলেন। ছিনতাইকারীও সাবিনা পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন। ট্রেনটি প্ল্যাটফর্মের সামান্য সামনে এগোনোর সঙ্গে সঙ্গে সাবিনার হাতে থাকা ব্যাগটি ছিনিয়ে নিতে টান দেন ছিনতাইকারী। এসময় সাবিনা ট্রেন থেকে নিচে পড়ে যান।

তবে ট্রেনের ভেতরে থাকা যাত্রীদের কয়েকজন বলছেন, ‘সাবিনা দরজার কাছে ছিলেন। ছিনতাইকারীর অবস্থান ট্রেনে নয়, নিচে ছিল। সাবিনা ট্রেন থেকে নিচে পড়ে যাওয়ার পর তার সন্তান ট্রেনে রয়ে যায়। পরে যাত্রীরা শিশু মেরাজকে বিমানবন্দর পুলিশের কাছে বুঝিয়ে দেন। বিমানবন্দর পুলিশ আবার রাতেই মেরাজকে ভৈরব রেলওয়ে পুলিশের কাছে পাঠিয়ে দেয়। গভীর রাতে শিশুটির খালা তাসলিমা বেগম থানায় এসে মেরাজকে নিয়ে যান।

ভৈরব পৌর শহরের ঘোড়াকান্দা এলাকার বাসিন্দা শহীদুল আলম জানান, রাতে রেললাইনের পাশে পড়ে থাকতে দেখে তারা কয়েকজন মিলে আহত সাবিনাকে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা করিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। রাতেই সাবিনার মাথার সিটিস্ক্যান হয়েছে। চিকিৎসক জানিয়েছেন, মাথার পেছনের আঘাত গুরুতর। রক্তক্ষরণ হয়েছে। এখনো তার জ্ঞান ফেরেনি।

ভৈরব রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস আহমেদ বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় ভৈরব রেলওয়ে পুলিশ রাতেই বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে নয়জনকে আটক করে। তারা স্টেশন এলাকায় নানা অপরাধ কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। আগে করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে তাদের কিশোরগঞ্জ কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/২৫ফেব্রুয়ারি/পিএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :