কোম্পানীগঞ্জে আ.লীগের হরতালে সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত ১০

নোয়াখালী প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১২ জুন ২০২১, ২২:৩৮

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের ডাকা ৪৮ ঘণ্টার হরতালের প্রথম দিন আজ শনিবার পুলিশের সঙ্গে হরতালকারীদের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে চার পুলিশ সদস্যসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

শনিবার দুপুর পৌনে একটার দিকে উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের টেকের বাজার এলাকায় ওই সংঘর্ষ হয়। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন- কোম্পানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ, কনস্টেবল আনিছুল মোস্তফা, মুরাদ ও অংকন। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

কাদের মির্জার গ্রেপ্তারের দাবিতে শনিবার দুপুর থেকে কোম্পানীগঞ্জে ৪৮ ঘণ্টা হরতালের ডাক দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের মুখপাত্র মাহবুবুর রশিদ মঞ্জু। এরপর থেকে উপজেলার সর্বত্র রাস্তায় ব্যারিকেড ও টায়ারে আগুন দিয়ে বিক্ষোভ করেন আওয়ামী লীগের বাদল সমর্থকরা।

কোম্পানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ জানান, বসুরহাট-পেশকারহাট সড়কের টেকের বাজারে গাছের গুঁড়ি ফেলে রাস্তা অবরোধের খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে যায় অবরোধ সরাতে। আওয়ামী লীগের নেতা ফখরুল ইসলাম সবুজের নেতৃত্বে পুলিশের প্রতি ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে তিনিসহ চার পুলিশ আহত হন। পরে ৩৩ রাউন্ড গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন তারা।

এদিকে জানা গেছে, পুলিশের গুলিতে আওয়ামী লীগের নেতা ফখরুল ইসলাম সবুজ, তার ছেলে তরিকুল ইসলাম চয়ন, হৃদয়, ফারুকসহ ছয়জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদের নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের অনুসারী।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ৩৩ রাউন্ড গুলি ছোড়া হয়েছে। বসুরহাটসহ বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ-র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে শনিবার সকাল ৯টার দিকে বসুরহাটের মেয়র আবদুল কাদের মির্জার লোকজন তার প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের ওপর হামলা করে। এতে বাদলসহ সাবেক ছাত্রনেতা হাসিব আহসান আলাল আহত হন। তাদের উদ্ধার করে ঢাকা ট্রমা সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/১২জুন/এলএ/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :