বিয়ে না করায় প্রেমিকের জিহ্বা কেটে নিলেন প্রেমিকা

সাভার (ঢাকা) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৭ | প্রকাশিত : ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৬

ঢাকার ধামরাইয়ে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে বিয়ে না করায় প্রেমিক সাইফুল ইসলামের জিহ্বা ব্লেড দিয়ে কেটে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিকার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় প্রেমিকা শারমিন আক্তারসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে উপজেলার রোয়াইল ইউনিয়নের ফড়িঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত প্রেমিক সাইফুল ইসলাম স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। সাইফুল ইসলামের বাড়ি একই গ্রামে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- প্রেমিকা শারমিন আক্তার, তার বাবা শফিকুল ইসলাম, মা পানকা বেগম ও ভাই ফারুক হোসেন।

পুলিশ ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ফড়িঙ্গা গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে শারমিন আক্তারের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল সাইফুল ইসলামের। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন সাইফুল। কিন্তু বিয়ে না করে সময়ক্ষেপণ করতে থাকায় শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে শারমিন আক্তার প্রেমিক সাইফুল ইসলামকে তার বাড়িতে ডেকে নেন। পরে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী অন্তরঙ্গ মুহূর্তে কৌশলে শারমিন আক্তার ব্লেড দিয়ে প্রেমিক সাইফুল ইসলামের জিহ্বা কেটে ফেলেন।

ঘটনার পর প্রেমিকার পরিবারের সদস্যরা সাইফুল ইসলামকে মারধর করেন। একপর্যায়ে সাইফুল অজ্ঞান হয়ে পড়লে মৃত ভেবে তারা ঘরের মেঝেতে ফেলে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যান। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ধামরাই থানার এসআই নির্মল কুমার দাশ ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘খবর পেয়ে শারমিন আক্তারের বাড়ি থেকে খণ্ডিত জিহ্বা উদ্ধার করা হয়েছে। পরে রাতে ফড়িঙ্গা গ্রামের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে প্রেমিকা ও তার পরিবারের তিন সদস্যকে আটক করা হয়েছ। এ ঘটনায় রাতেই একটি মামলা হয়েছে।’

ধামরাই থানার পুলিশ পরিদর্শক আতিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

(ঢাকাটাইমস/২৪অক্টোবর/এসএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :