বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক বীর মুক্তিযোদ্ধা আসাদ মাস্টার

মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:৩৫

আসন্ন চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার ৪ নম্বর টগরবন্দ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মিয়া আসাদুজ্জামান ওরফে আসাদ মাস্টার।

দীর্ঘ ৫৪ বছরেরও বেশি সময় ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে বিশ্বস্ত, ত্যাগী ও পরীক্ষিত সৈনিক মিয়া আসাদুজ্জামান ইউনিয়নের শিকিপাড়া গ্রামের আব্দুস শুকুর মিয়ার পুত্র।

১৯৬৬ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছয় দফা আন্দোলনে উদ্বুদ্ধ হয়ে ১৯৬৭ সালে যশোর সিটি কলেজে অধ্যায়নরত থাকাকালে ছাত্রলীগে যোগদান করেন আসাদুজ্জামান। পরবর্তীতে ওই কমিটিতে ছাত্রলীগের সদস্য হিসেবে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬৯ সালের গণঅভ্যুত্থানের সময়ে বিএ অধ্যয়নরত অবস্থায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বোয়ালমারি কলেজ শাখায় সক্রিয় সদস্য হিসেবে কাজ করেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মিয়া আসাদুজ্জামান ছাত্রজীবনেই যুক্ত হন পাকিস্তানবিরোধী আন্দোলনে। ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে মৃত্যুর ঝুঁকি উপেক্ষা করে তিনি সরাসরি অংশগ্রহণ করেন মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে। দেশ স্বাধীনের পরে আওয়ামী লীগ আলফাডাঙ্গা উপজেলা শাখার সব লড়াই আন্দোলন সংগ্রাম ও কর্মসূচিতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সাহসী ভূমিকা পালন করেন।

কর্মজীবনে মহান পেশা হিসেবে শিক্ষাকতায় আত্মনিয়োগ করে উপজেলার টগরবন্দ ইউনিয়নের বিভিন্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে শিক্ষকতা করে ২০০৭ সালের ৪ জানুয়ারি অবসর গ্রহণ করেন মিয়া আসাদুজ্জামান।

১৯৬৭ সাল থেকে রাজনীতিতে যোগদান করে এ পর্যন্ত সুনামের সঙ্গে সারাজীবন আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত রয়েছেন মিয়া আসাদুজ্জামান। বর্তমানে আলফাডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

রাজনৈতিক কার্যক্রমের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমেও মিয়া আসাদুজ্জামান পরিচিত নাম। তিনি পানাইল আলহাজ্ব মহিউদ্দিন জ্ঞানতীর্থ পাঠাগারের সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করছেন। চরডাঙ্গা কবিরত্ন এম এ হক স্মৃতি পাঠাগারের উপদেষ্টা। এছাড়াও আরও বিভিন্ন সামাজিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে তিনি জড়িত।

এলাকায় শিক্ষার মানোন্নয়নেও তার রয়েছে অগ্রণী ভূমিকা। মিয়া আসাদুজ্জামান মর্নিং স্টার একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, আলফাডাঙ্গা আদর্শ কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য, পানাইল ইউনাইটেড একাডেমির বার বার নির্বাচিত সদস্য ও সহ-সভাপতি পদে বিভিন্ন সময় দায়িত্ব পালন করেছেন।

দেশে মহামারি করোনাকালীন সংকট পরিস্থিতিতে এলাকার অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী ও নগদ টাকা সহায়তা দিয়েছেন। বিভিন্ন সময়ে সামাজিক কার্যক্রমে তার রয়েছে অনস্বীকার্য ভূমিকা।

এসব বিষয়ে মিয়া আসাদুজ্জামান বলেন, ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত একটি উন্নত সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ বিনির্মাণে, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নিজেকে নিয়োজিত রাখা ও দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে জাতির পিতার অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে সহায়তা এবং একটি সত্যিকারের সুন্দর সমাজব্যবস্থা বিনির্মাণের কাজ করতে আমি অঙ্গীকারবদ্ধ। তাই আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রতিনিধি হিসেবে আসন্ন টগরবন্দ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছি।

গত ১০ নভেম্বর চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি। এরপর প্রার্থীরা গত ২৫ নভেম্বর মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ২৯ নভেম্বর। প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ৬ ডিসেম্বর। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ ৭ ডিসেম্বর এবং ২৬ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

(ঢাকাটাইমস/১ডিসেম্বর/কেএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :