পুঁজিবাজারে সঠিক বিনিয়োগ ও ধৈর্য পুরস্কার আনেই

শাকিল রিজভী
| আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ২০:১৭ | প্রকাশিত : ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮:৩৭

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের আগে বিষয়টি সম্পর্কে জেনে-বুঝে নিতে হবে এবং এ-সংক্রান্ত পড়াশোনা করতে হবে। কে কোন জায়গায় বিনিয়োগ করে ধৈর্য ধরবেন সেটাও গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। গত পাঁচ বছরে দেখা গেছে অনেক শেয়ারের দাম চার পাঁচ গুণ বেড়েছে। তার মানে কোন শেয়ারে আপনি বিনিয়োগ করেছেন সেটা আসলে বিনিয়োগযোগ্য শেয়ার কি না, এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

কোনো কোম্পানির ফান্ডামেন্টাল যদি ভালো থাকে, কোম্পানির ভেতরে যদি সেরকম পটেনশিয়াল কিছু থাকে, তাহলে আজকে মূল্যায়ন না হলেও আগামী দিন অবশ্যই মূল্যায়ন হবে। তখন সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারী চার-পাঁচ গুণ লাভবান হবেন। অতীতে বিনিয়োগকারীরা এভাবেই পুরস্কৃত হয়েছেন।

কোনো কোনো শেয়ারের দাম ১০০ গুণ বেড়েছে এমন ইতিহাস আছে। আবার ১০০ টাকায় কিনে ৫ টাকা হয়েছে সেই ইতিহাসও আছে। সুতরাং কে কোন জায়গায় বিনিয়োগ করে ধৈর্য ধরবেন, সেটাও আরেকটা প্রশ্ন। এখানেও কিন্তু শিক্ষার ব্যাপার আছে এবং জানার ব্যাপার আছে।

উদাহরণ হিসেবে বলব- ডুবন্ত জাহাজে যদি ধৈর্য ধরে কেউ দাঁড়িয়ে থাকে তাহলে সে ডুবে যাবে। সুতরাং ধৈর্য কোন জায়গায় ধরতে হবে, আগে সেটা ভালোভাবে পরিষ্কার হতে হবে। কোনো জায়গায় গ্যাপ রাখা যাবে না। কোনো কিছু না বোঝা গেলে ভালোভাবে বুঝে নিতে হবে। অন্যথায় আপনি বারবার ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য কেউ কাউকে ডেকে আনে না। যার যার বিনিয়োগ তারা বুদ্ধিমানের মতো নিজেরাই করবেন। লাভ হলে আপনারই হবে, লোকসান হলেও আপনারই হবে। আমরা শুধু সান্ত্বনা দিতে পারি। বিনিয়োগ কিন্তু আপনারই। আপনার টাকা আপনার নিজের চিন্তায় সবচেয়ে বেশি কাজে দিবে।

আরেকটা ব্যাপার হলো- আমি যখন বিনিয়োগকারী, তখন আমি ব্যক্তিগতভাবে বিনিয়োগ করি। তখন আগে থেকেই চিন্তা করতাম আমি যদি কোনো কারণে লস করি? মনে করুন, আমার পিকপকেট হয়ে গেল। তখন ওই পিকপকেট কে করছে তাকে ধরার জন্য আমি অতটা মাথা ঘামায় না। আমি চিন্তা করি আমি কেন আমার মানিব্যাগটা ঠিকমতো ধরে রাখতে পারলাম না। আমার কী করা উচিত ছিল, কী কী ভুল ছিল। এটা ভেবে ওই জায়গাতেই কিন্তু সময়টা বেশি নষ্ট করি।

মনে করুন আমি রেলওয়ে স্টেশনে গেলাম। ট্রেনে করে চিটাগাং যাচ্ছি, মানিব্যাগ ভর্তি টাকা। আমি ঘুমিয়ে পড়লাম, আমার মানিব্যাগ হারিয়ে গেল। এখন আমি যদি রেল কর্তৃপক্ষের পুলিশের কাছে বিচার চাই, চাইতে পারি। আইন অনুযায়ী তারা খোঁজাখুঁজি করবে। কিন্তু আমার টাকা ফিরে পাব কি না আমি জানি না। কিন্তু তার চেয়ে ভালো হলো আমি আমার মানিব্যাগটা যদি সাবধানে রাখি। আমার টাকার রেগুলেটরি আমাকেই হতে হবে।

সুতরাং বিনিয়োগের আগে ১০০ বার চিন্তা করতে হবে। কে কী বলছে, কোন ভাই কী বলেছে, এগুলো মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে দিতে হবে। আমার টাকা আমি বিনিয়োগ করব, ভালো করে বুঝে বিনিয়োগ করব। আগে যারা সফলতা অর্জন করেছে, সেই সব বিনিয়োগকারীর কথা শুনব। তাদের কাছ থেকে জানব, বুঝব এবং আইটেম না খুঁজে বিষয়টা বোঝার চেষ্টা করব।

লেখক: সাবেক প্রেসিডেন্ট, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ। ম্যানেজিং ডিরেক্টর, শাকিল রিজভী স্টক লিমিটেড।

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :