বিএসএমএমইউর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে দেশেই সব চিকিৎসা নিশ্চিতের অঙ্গীকার

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ৩০ এপ্রিল ২০২২, ১৪:৪১

‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য মো. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেছেন, সততা ও দক্ষতার সঙ্গে নিরলস পরিশ্রম করে এই বিশ্ববিদ্যালয়কে আর্ন্তজাতিক মানে উন্নীত করতে হবে। তিনি বলেন, বিএসএমএমইউর চিকিৎসা সেবা এমন করতে হবে যাতে আর কাউকে দেশের বাইরে কাউকে চিকিৎসা নিতে না যেতে হয়।

বিএসএমএমইউর ২৫তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য এসব বলেন।

শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে দিবসটি উপলক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বি ব্লকে স্থাপিত স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ, জাতীয় সঙ্গীতের সঙ্গে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন, সি ব্লকে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণসহ বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়।

কর্মসূচির শুরু হয় ক্যাম্পাসে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে। এরপর জাতীয় সংগীতের সাথে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন করা হয়। পতাকা উত্তোলনের পর একটি শোভাযাত্রা বিএসএমএমইউর বি- ব্লকের সামনে থেকে শুরু হয়ে বটতলা, টিএসসি, বেসিক সাইন্স ভবন, ডি ব্লক, সি ব্লক প্রদক্ষিণ করে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে গিয়ে শেষ হয়। বিএসএমএমইউর উপাচার্য মো. শারফুদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে এসব কর্মসূচি পালিত হয়।

এ সময় বিএসএমএমইউর উপাচার্য মো. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, দীর্ঘ আন্দোলন-সংগ্রামের পর জাতির জনকের মেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে ১৯৯৮ সালে জাতির পিতার নামে আজকের এই দিনে বিএসএমএমইউ প্রতিষ্ঠা করেন। আজকের দিনে সবার শপথ নিতে হবে, যে যার কাজ সততার সাথে করবো। শিক্ষার মান আরো বাড়াতে হবে। গবেষণার মানও বৃদ্ধি করতে হবে। সেবার মান আগের থেকে যেমন করে করোনার সময় বৃদ্ধি করতে পেরেছি ঠিক তেমন করে আরও বৃদ্ধি করতে হবে। তিনি বলেন, চিকিৎসা ব্যবস্থা এমন করতে হবে যাতে দেশের বাইরে কাউকে চিকিৎসা নিতে না যেতে হয়। বিশ্বের সর্বাধুনিক অপারেশনের ব্যবস্থাপনা করার জন্য প্রয়োজনী উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।