সড়ক দখল করে পশুহাট, নেই সিটি করপোরেশনের নজর

কৌশিক রায়, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৬ জুলাই ২০২২, ২১:৪৭ | প্রকাশিত : ০৬ জুলাই ২০২২, ১৯:৩১

কোরবানির ঈদ ঘিরে ঢাকার দুই সিটিতে বসেছে ২০টি পশুর হাট। এর মধ্যে একটি হাট বসেছে আবাসিক এলাকায়। ঢাকা দক্ষিণ সিটি আওতায় বনশ্রীর পূর্বে মেরাদিয়ায় বসেছে এই পশুর হাট।

বুধবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা গেছে, আফতাবনগর থেকে বনশ্রীর দিকে বেশ কিছুটা এগিয়ে মেরাদিয়া বাজারের নিকটে বসেছে পশুর হাট। সিটি করপোরেশনের নির্দেশনা ছিল বাজারের সন্নিকটে খালি জায়গায় হাট বসানোর। তবে দেখা গেছে, সেই নির্দেশনা মানা হয়নি।

বাজার থেকে চলে যাওয়া সড়কটি জুড়ে বসেছে হাট। সড়কের দুই ধারে বাঁশের খুটি পুঁতে বানানো হয়েছে গরু রাখার জায়গা। সেখানে সারি সারি বেঁধে রাখা হয়েছে পশুগুলো। ফলে সড়কের দুই দিকে মুখ দিয়ে পশু বেঁধে রাখাই প্রধান সড়কের সংযোগ সড়কটি হয়েছে দখল। সেই সঙ্গে দখল হয়েছে ফুটপাতও।

আবাসিক এলাকাটির বাসিন্দাদের অভিযোগ, এভাবে হাট বসানোর ফলে তাদের চলাচলে ব্যাঘাত হচ্ছে। সেইসঙ্গে ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে পুরো সড়ক। নিয়ম না মেনে হাট বসালেও সিটি করপোরেশন এবিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলেও অভিযোগ বাসিন্দাদের।

এদিকে সিটি করপোরেশন থেকে পশুর বর্জ্য নিয়মিত পরিষ্কারের নির্দেশনা থাকলেও সেদিকে খেয়াল নেই কর্তৃপক্ষের। নেই ইজারাদারের নজনদারিও। এলাকাবাসী অভিযোগ করলেও হাটটির ইজারাদার মো. আওরঙ্গজেব টিটু তা গুরুত্ব দিচ্ছেন না।

এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ঢাকা টাইমসকে তিনি বলেন, ‘আবাসিক এলাকাতে পশুর হাট বসানোর কোনো অনুমতি নেই। গরুর হাটের জন্য নির্দিষ্ট স্থান রয়েছে। সড়ক দখল করে পশুর হাট বসানো হলে খোঁজ নিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পাঠিয়ে সড়কের থেকে হাট উচ্ছেদ করবো।’

এদিকে হাটটির অব্যবস্থাপনা এবং সড়কে হাট বসানোর বিষয়ে ইজারাদার মো. আওরঙ্গজেব টিটুকে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা ও ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়েও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে যেখানে বসছে হাট: