আদালত গঠিত বোর্ডে শামীমার আবেদন, ইভ্যালি চালু করতে চান

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১০ আগস্ট ২০২২, ১৯:৫২

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি পুনরায় চালু করতে আদালত গঠিত বোর্ডের কাছে আবেদন করেছেন কোম্পানিটির সাবেক চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন। আবেদনে তিনি নিজেকে এবং তার মা ও বোনের স্বামীকে পরিচালনা বোর্ডে অন্তর্ভুক্ত করতে বলেছেন।

এছাড়াও আদালতে করা অপর একটি আবেদনে মো. রাসেল ও শামীমা নাসরিনকে যেন অযথা মামলা দিয়ে হয়রানি না করা হয়, তার জন্য নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

শামীমা নাসরিনের পক্ষে অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম এ আবেদন করেন। অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম বলেন, আদালতে জানানো হয়েছে, চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন ইভ্যালি গ্রাহক ও বিক্রেতাদের টাকা পরিশোধ করে পুনরায় ব্যবসা শুরু করতে চায়।

গত ১৯ এপ্রিল ইভ্যালির অবসায়ন চেয়ে করা রিট মামলায় পক্ষভুক্ত হতে সংস্থাটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনের আবেদন গ্রহণ করেন হাইকোর্ট। আদালত আদেশে বলেন, এখন থেকে এ রিট মামলায় শামীমা নাসরিন ১৫ নম্বর বিবাদী হিসেবে গণ্য হবেন।

ওই দিন রিটের পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ মাহসিব হোসাইন বলেছিলেন, ইভ্যালির অবসায়ন চেয়ে করা রিট মামলায় পক্ষভুক্ত আবেদন করেন প্রতিষ্ঠানটির সাবেক চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন। তিনি আবেদনে উল্লেখ করেন কোম্পানিতে যে ৫০ ভাগ শেয়ার ছিল, তার মধ্যে ২০ ভাগ শেয়ার এরইমধ্যে তিনি নিজের মা ও বোনের স্বামীর নামে হস্তান্তর করেছেন।

২০১৮ সালের ১৬ ডিসেম্বর যাত্রা শুরু করে ইভ্যালি। সেসময় সিইও রাসেল বাংলাদেশে আমাজন ও আলিবাবার মতো প্লাটফর্ম তৈরির স্বপ্নের কথা বলে গ্রাহকদের আকৃষ্ট করেন। চালু করেন ক্যাশব্যাক অফার। এ অফারের আওতায় পণ্যভেদে ১০ শতাংশ থেকে শুরু করে ৩০০ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশব্যাক পেতেন গ্রাহকরা।

লোভনীয় অফারের টোপ দিয়ে গ্রাহকের বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাতের দায়ে গেল বছরের সেপ্টেম্বরে গ্রাহকের মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় ইভ্যালির কর্ণধার মোহাম্মদ রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনকে।

গত বছরের ১৮ অক্টোবর ইভ্যালি পরিচালনার জন্য আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি এইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিককে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের বোর্ড গঠন করে দেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ বোর্ড গঠন করেন।

প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে গত বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর আরিফ বাকের নামের এক গ্রাহক গুলশান থানায় ইভ্যালির মো. রাসেল ও তার স্ত্রী শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। পরদিন বিকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের স্যার সৈয়দ রোডের বাসা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। শামীমা নাসরিন বর্তমানে জামিনে রয়েছেন।

তবে বেশ কয়েকটি মামলায় জামিন হলেও আরও মামলা থাকায় কারাগারেই রয়েছেন রাসেল।

ঢাকাটাইমস/১০আগস্ট/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আদালত এর সর্বশেষ

দুদকের মামলায় পি কে হালদারসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু

রাজধানীতে দুই কিশোরী ধর্ষণ মামলায় তিনজনের যাবজ্জীবন

কুনিও হোসি হত্যায় ৪ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড বহাল, খালাস ১

ইলিশ রপ্তানি বন্ধে এবার হাইকোর্টে রিট

প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর মামলায় যুবকের ১০ বছরের কারাদণ্ড

আ.লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে করা বিএনপির মামলার আবেদন খারিজ

সেলিম চেয়ারম্যানের জামিন স্থগিত, ৭ দিনের মধ্যে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদকসহ আ.লীগের ২০ জনের বিরুদ্ধে বিএনপির মামলার আবেদন

অপহরণের পর মুক্তিপণ আদায়: গোয়েন্দা পুলিশের বরখাস্ত ৭ সদস্যের ৭ বছর করে কারাদণ্ড

বাবুল আক্তারের মামলা গ্রহণ হবে কি না জানা যাবে ২৫ সেপ্টেম্বর

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :