ভোজ্যতেলের নতুন দাম নির্ধারণ শিগগিরই

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৫:৫০ | প্রকাশিত : ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৪:১৬

দেশে ভোজ্যতেলের দাম নতুন করে নির্ধারণ করা হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। বলেন, ‘অচিরেই ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বসে ভোজ্যতেলের নতুন দাম ঠিক করা হবে।’

সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বুধবার সাংবাদিকদের একথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী। রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা টিসিবির এক কোটি পরিবারের মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম নিয়ে সংবাদ সম্মেলনটির আয়োজন করা হয়।

টিপু মুনশি বলেন, ‘টিসিবির মাধ্যমে প্রতি মাসে এক কোটি পরিবারকে ভর্তুকি মূল্যে নিত্যপণ্য দেওয়া হবে। যাদের ফ্যামিলি কার্ড আছে তারাই এই পণ্য কেনার সুযোগ পাবে।’

এরই মধ্যে ৮৫ শতাংশ কার্ড তৈরি হয়েছে জানিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন এলাকায় ১৩ লাখ কার্ড বিতরণ করা হবে। একটি ওয়ার্ডে একাধিক ডিলারের দোকান থাকবে। সেখান থেকে মাসে একবার কার্ড স্ক্যানিং করে পণ্য নিতে পারবে।’

এক শ্রেণির ব্যবসায়ী সুযোগ নিচ্ছে:

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির সুযোগে ‘এক শ্রেণির ব্যবসায়ী’ পণ্যমূল্য বাড়িয়ে দিচ্ছে মন্তব্য করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘পণ্যমূল্য যে পরিমাণ বাড়ার কথা তার চেয়ে অনেক বেশি বাড়িয়ে দিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। পণ্যমূল্য অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে গেছে। দাম নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।’

নিত্যপণ্যের দাম নিয়ে মানুষের দুর্ভোগ লাগবে সরকার কী পদক্ষেপ নিচ্ছে প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা সত্য কথাই বলেছেন। আমরা এ বিষয়গুলো দেখছি। তবে সবকিছু বাণিজ্য মন্ত্রণালয় নিয়ন্ত্রণ করে না। দাম যে পরিমাণ বাড়ার কথা তার থেকে অনেক বেশি সুযোগ নিয়েছে।’

সিন্ডিকেট করে নিত্যপ্রয়োজনীয় সব পণ্যের দাম বাড়ানোর যে অভিযোগ আসছে তা মনিটরিং করা হচ্ছে কি না জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘সচিবকে বলেছি যে যেই মন্ত্রণালয়ে আছেন সবাইকে চেষ্টা করতে হবে।’

‘আমাদের কাছে হিসাব আছে। ধরেন, তেলের দাম বাড়ায় পরিবহন খরচের জন্য প্রতি কেজিতে ৫০ পয়সা করে বাড়তে পারে। সেখানে ব্যবসায়ীরা ৪ টাকা পর্যন্ত বাড়িয়েছে। এখানে কোনো লজিক আছে? নাই।’

দাম কবে নাগাদ কমে আসবে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সেটা বলা যাবে না। তবে আমরা খুব আশাবাদী অক্টোবরের মধ্যে কিছুটা কমে আসবে। কতগুলো ফ্যাক্টর কাজ করে। আমি জানি না পুতিন সাহেব কবে যুদ্ধ বন্ধ করবেন। সেটা তো আমার হিসাবের মধ্যে নেই।’

দাম কমানোর স্বার্থে প্রয়োজনে ডিম আমদানি:

নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দামের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ডিমের দামও। বাজারে প্রতি হালি ডিম বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা দরে। মন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন ছিল—ডিমের দাম অস্বাভাবিক বাড়ার বিষয়ে আমদানির কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে কি না।

উত্তরে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দাম কমানোর স্বার্থে প্রয়োজনে ডিম আমদানির সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে একটু সময় তো লাগবে। আমরা একটু দেখি। যদি এমনটাই হয় যে, ডিম আমদানি করলে পরে এটা কমবে, তাহলে আমরা আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলবো।’

‘আমরা কৃষি, মৎস্যসহ কয়েকটা মন্ত্রণালয় মিলে কীভাবে ডিমের দাম কমানো যায় সে বিষয়ে আলোচনা করব। তবে সবকিছু কিন্তু রাতারাতি করা সম্ভব না’—বাণিজ্যমন্ত্রী।

(ঢাকাটাইমস/১৭আগস্ট/কেআর/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

জাতীয় এর সর্বশেষ

বাংলাদেশ থেকে মলদোভায় কর্মী নিয়োগ শুরু

চীনের সঙ্গে বাণিজ্য বাড়াতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর

চলতি আমন মৌসুমে ধান আবাদে লক্ষ্যমাত্রার শতভাগ অর্জিত: কৃষিমন্ত্রী

জাতিসংঘের দেওয়া বাংলাদেশে গুমের শিকারদের তালিকায় দুই ভারতীয় নাগরিক

তাল গাছের গুরুত্ব তুলে ধরে পিঠা নিয়ে আবেগী খাদ্যমন্ত্রী

পুরো দেশকে উচ্চগতির ইন্টারনেটের আওতায় আনা হচ্ছে: টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

দর্শকের ভালোবাসা জয় করেছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’: আইজিপি

এবার দেশে দুর্গাপূজা ৩২ হাজার ১৬৮ মণ্ডপে

জানুয়ারি থেকে ভোটারদের ১০ আঙুলের ছাপ নেবে ইসি

সরকারি খরচায় লিগ্যাল এইডে ছয় মাসে ৫৬৮৭৭ জনকে আইনি সেবা

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :