রাজধানীতে ২৯ ছিনতাইকারী আটক

ভুক্তভোগীরা আইনের আশ্রয় না নেয়ায় বাড়ছে ছিনতাই: র‌্যাব

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:৩৭ | প্রকাশিত : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৫৭

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় প্রতিদিন অসংখ্য যাত্রী ও পথচারী ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে সর্বস্ব হারিয়ে জখম হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। এই ভুক্তভোগীদের মধ্যে বেশির ভাগই আইন-শৃংঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা নেন না। এতে করে ছিনতাইকারী চক্রের তৎপরতা বেড়ে যাচ্ছে বলে মনে করে র‌্যাব। এছাড়া ছিনতাইকারীরা সকলেই মাদকাসক্ত বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর কমলাপুর, শাহজাহানপুর, মতিঝিল, মুগদা, পল্টন, হাতিরঝিল এবং তেজগাঁও এলাকা থেকে সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্রের মূলহোতাসহ ২৯ জন সক্রিয় সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-৩।

আটকের পর আজ শুক্রবার সকালে র‌্যাব-৩ এর স্টাফ অফিসার (মিডিয়া) সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) ফারজানা হক এসব কথা বলেন।

রাজধানীর কমলাপুর এলাকায় এক নারীর গলা থেকে স্বর্ণের চেইন ছিনতাই করে দৌঁড়ে পালানোর সময় পিছু ধাওয়া করে দুর্ধর্ষ ছিনতাইকারী আরিফ হোসেনকে হাতেনাতে আটক করা হয়। এছাড়াও রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ অজ্ঞানপার্টির সদস্য ও ছিনতাইকারীদের আটক করে র‌্যাব।

আকৃতরা হলেন- ইসলাম, বাবু, টিটু, শরিফ, নুরে আলম, মুরাদীল মুস্তাকিম মুরাদ, জালাল, হৃদয়, হোসেন মোটু, জয়, সুমন, ইয়াছিন রাব্বি, টিটু, পরান, রাসেল, জীবন সরদার, শুক্কুর, সাগর হোসেন, মাসুম খান, মিহির তালুকদার, হোসেন, ফারুক, মেহেদী হাসান রানা, সুজন, জুলহাস, কবির হোসেন, দেওয়ান আলী ও তৌহিদ হাওলাদার।

এসময় তাদের কাছ থেকে ১৮টি মোবাইল ফোন, সাতটি সুইচ গিয়ার চাকু, দুটি এন্টি কাটার, ছয়টি ব্লেড, একটি কাঁচি, চাকু, ক্ষুর, বিষাক্ত মলমের কৌটা, স্বর্ণের চেইন ও নগদ ৩২৪ টাকা উদ্ধার করা হয়।

আটককৃত ছিনতাইকারীদের বরাত দিয়ে র‌্যাব জানায়, তারা রাজধানীর বাসস্ট্যান্ড, রেল স্টেশন এলাকায় ঘোরাফেরা করে। যাত্রীদের টার্গেট করে কখনও তাদেরকে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে। আবার কখনও বিষাক্ত চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে খাওয়ানোর চেষ্টা করে। এভাবে তার সর্বস্ব কেড়ে নিয়ে ভিড়ের মধ্যে মিশে যান। এছাড়াও ভিড়ের মধ্যে যাত্রীদের চোখে-মুখে বিষাক্ত মলম, মরিচের গুড়া ও বিষাক্ত স্প্রে করে সর্বস্ব কেড়ে নেয়। এ ছিনতাইকারীদেরকে ভুক্তভোগীরা খুব কম সময়ই শনাক্ত করতে পারেন। এতে করে তারা নির্বিঘ্নে তাদের অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে।

র‌্যাবের ভাষ্য, ছিনতাই কাজে বাধা দিলে তারা নিরীহ পথচারীদের প্রাণঘাতী আঘাত করতে দ্বিধাবোধ করে না। খিলগাঁও, মালিবাগ রেইলগেট, দৈনিক বাংলা মোড়, পীরজঙ্গি মাজার ক্রসিং, কমলাপুর বটতলা, মতিঝিল কালভার্ট রোড, নাসিরের টেক হাতিরঝিল, শাহবাগ, গুলবাগ, রাজউক ক্রসিং, ইউবিএল ক্রসিং, পল্টন মোড়, গোলাপ শাহর মাজার ক্রসিং, হাইকোর্ট ক্রসিং, আব্দুল গণি রোড, মানিকনগর স্টেডিয়ামের সামনে, নন্দীপাড়া ব্রিজ, বাসাবো ক্রসিং এলাকায় সন্ধ্যা থেকে ভোর রাত পর্যন্ত ছিনতাইকারীদের তৎপরতা বেশি দেখা যায়।

র‌্যাবের ভাষ্য, ছিনতাইকারীদের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযানে স্বস্তি ফিরেছে রাজধানীতে। রাজধানীতে বসবাসকারীরা এবং রাজধানীতে আগত যাত্রীরা যাতে নিরাপদে চলাফেরা করতে পারেন সেজন্য সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্রের বিরুদ্ধে র‌্যাবের সাড়াঁশি অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান এএসপি ফারজানা হক।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় বেশ কয়েকটি মামলা করা হয়েছে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

(ঢাকাটাইমস/০৯সেপ্টেম্বর/এএইচ/এফএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অপরাধ ও দুর্নীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :