আগামী বছর বিশ্বব্যাপী মহাসংকট, আশঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৬ অক্টোবর ২০২২, ১৭:০১

২০২৩ সালে বিশ্বের সবার জন্য অত্যন্ত দুর্যোগময় সময় আসছে বলে আশঙ্কার কথা ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী একটা মহাসংকট দেখা দেবে আগামী বছর। তাই প্রস্তুতি নিতে হবে। এর মধ্যে আমাদের খাদ্য বিষয়ে বেশি নিরাপত্তা দরকার।’

বৃহস্পতিবার বিকাল চারটায় গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে ১৮ দিনের সফরের অভিজ্ঞতা জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন সরকারপ্রধান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতিসংঘ বা এসব অনুষ্ঠানে অফিসিয়াল এবং আনঅফিসিয়ালি অনেকের সঙ্গে কথা হয়। বিশ্বের বহু দেশের রাষ্ট্র প্রধানরাও এসেছিলেন, তাদের সঙ্গেও কথা হয়েছে। সবার মধ্যেই কিন্তু একটা অসন্তোষ বিরাজ করছে।’

‘২০২৩ সালে সবার জন্য অত্যন্ত দুর্যোগময় একটি সময় এগিয়ে আসছে। এমনকি বিশ্বব্যাপী দুর্যোগও দেখা দিতে যাচ্ছে। এই বিষয় তারা ব্যক্ত করেছেন। আর আমাদের দেশ দুর্যোগময় দেশ। আমরা কিন্তু দুর্যোগ মোকাবিলা করেই তিন টার্ম সময় ধরে এগিয়ে যাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এখন আমাদের প্রচেষ্টা একটাই, উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পাওয়ার জন্য যা যা করার দরকার তা আমরা করে এগিয়ে যাচ্ছিলাম, কিন্তু করোনা চলে আসছে। তাই আমরা আরও দুই বছর সময় নিয়েছি, অর্থাৎ ২০২৪ সাল থেকে ২০২৬ সাল পর্যন্ত সময় নেওয়া হয়েছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বিশ্বের যে অর্থনৈতিক সংকট, এর মধ্যেও আমরা যে বাজেট দিয়েছি, গত বছরের যে বেশি এবং আমাদের যে উন্নয়নমুখী বাজেট, তাও এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশে সফরে থাকাকালে যাদের সঙ্গে দেখা হয়েছে বা আমাদের বিদেশি নেতাকর্মীদের সঙ্গে দেখা হয়েছে সবাইকে বলেছি আপনাদের যার যতটুকু জমি আছে, তাতে চাষাবাদ করে কিছু যেন তারা উৎপাদন করেন। বিশ্বব্যাপী একটা মহাসংকট দেখা দেবে আগামী বছর। তাই একটা প্রস্তুতি নিতে হবে। এর মধ্যে আমাদের খাদ্য বিষয়ে বেশি নিরাপত্তা দরকার।’

সংবাদ সম্মেলনে সরকারের একাধিক মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম এবং বেসরকারি টেলিভিশনগুলো এ সংবাদ সম্মেলন সরাসরি সম্প্রচার করেছে।

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্যে অংশ নিতে ১৫ সেপ্টেম্বর লন্ডনে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখান থেকে জাতিসংঘের ৭৭তম সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে যান সরকারপ্রধান।

জাতিসংঘের অধিবেশন শেষে ওয়াশিংটন ডিসিতে কয়েক দিন কাটিয়ে মঙ্গলবার দেশে ফেরেন প্রধানমন্ত্রী। এর এক দিন পর সংবাদ সম্মেলনে এলেন সরকারপ্রধান।

যেকোনো দেশে রাষ্ট্রীয় সফর শেষে দেশে ফিরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংবাদ সম্মেলন করে থাকেন। এর আগে সবশেষ ১৪ সেপ্টেম্বর ভারত সফরের অভিজ্ঞতা জানাতে সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন সরকারপ্রধান।

সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী লিখিত বক্তব্য দেন। জাতিসংঘে তার ভাষণের বিষয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘রোহিঙ্গারা যাতে সম্মানের সঙ্গে ও নিরাপদে তাদের নিজ দেশে ফিরতে পারে সেই লক্ষ্যে বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক, ত্রিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। কিন্তু মিয়ানমার সরকারের রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাবে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসন এখন পর্যন্ত সম্ভব হয়নি।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ পরিবেশ তৈরিতে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি এবং রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন ত্বরান্বিত করার জন্য জাতিসংঘকে কার্যকর ও জোরালো ভূমিকা রাখার জন্য আহ্বান জানিয়েছি।’

(ঢাকাটাইমস/০৬অক্টোবর/জেএ/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :