মামলা-গ্রেপ্তারে ভীত নয় বিএনপি, ১০ ডিসেম্বর সমাবেশ সফল হবে: মির্জা আব্বাস

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১৫:২৯ | প্রকাশিত : ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১৫:১৭

হামলা-মামলা আর গ্রেপ্তারের মধ্য দিয়ে সরকার ভীতিকর পরিস্থিতি তৈরির চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। বলেন, ‘তবে এসব করে ১০ ডিসেম্বর বিএনপির গণসমাবেশ দমানো যাবে না। বিএনপির নেতাকর্মীরা ভীত নয়। যেকোনো ধরনের সন্ত্রাসের মোকাবিলা করে বিএনপির সমাবেশ সফল হবে।’

সোমবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা আব্বাস বলেন, ‘সম্প্রতি নয়াপল্টন আমাদের পার্টি অফিসের সামনে ককটেল ফাটানো হয়েছে। এই ধরনের কাজগুলো সরকার নিজে থেকে ঘোষণা দিয়েছিল যে, সন্ত্রাস হবে না।’

‘দেশবাসীকে অবগত করতে চাই, আমরা একটি শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করব। এই সমাবেশে আমাদের পরবর্তী কর্মসূচির ঘোষণা আসতে পারে। সমাবেশ সফল করার জন্য যে কাজগুলো করা দরকার তা করতে পারবো না—এরকম কোনো নিষেধাজ্ঞা তো সরকার দেয়নি।’

অথচ এরপরও বিএনপি নেতৃবৃন্দ রাতে বাসায় থাকতে পারছে না অভিযোগ করে দলটির এই স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, ‘গণসমাবেশ সফল করার জন্য আমাদের প্রচারণায় হামলা করা হচ্ছে।’

‘সরকার সন্ত্রাসমূলক আচরণ করছে আমাদের সাথে। আর তারা বারবার বলছে বিএনপি সন্ত্রাস করে। আমরা শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করব সেখানে আমরা সন্ত্রাস করতে যাব কেন? সেটা আমাদের মাথায় আসছে না।’

মির্জা আব্বাস বলেন, ‘সরকার সন্ত্রাসী কার্যক্রমের মাধ্যমে সারা দেশে যেটা করেছে, গতকাল (রবিবার) ইঞ্জিনিয়ার ইশরাকের ওপর হামলা চালিয়ে তারা প্রমাণ করেছে, যে সন্ত্রাসী কার্যক্রম তারাই করছে।’

সোমবার সকালে সিভিল এবং পোশাকধারী পুলিশ তার বাড়ি ঘেরাও করে রাখে অভিযোগ করে এই বিএনপি নেতা বলেন, ‘সকালে আমার বাড়িতে একটি কর্মিসভা করার কথা ছিল। শান্তিপূর্ণ সমাবেশের জন্য কর্মীদের দিকনির্দেশনা দেওয়ার কথা ছিল। সেটা আমাদেরকে করতে দেওয়া হয়নি। বাড়ির চারদিকে সিভিল এবং পোশাকধারী পুলিশ ঘিরে ফেলল।’

এসময় আটককৃত নেতাকর্মীদের অবিলম্বে মুক্তির দাবি জানিয়ে মির্জা আব্বাস বলেন, ‘হামলা-মামলা বন্ধ করুন। আমাদের সিদ্ধান্ত রয়েছে পল্টনেই সমাবেশ করব। আশা করব আমাদের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে কোনো বাধার চেষ্টা করবে না সরকার।’

১০ ডিসেম্বর ঢাকার সমাবেশে যেসব জায়গা থেকে বিএনপির নেতাকর্মী আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে সেখানেই হামলা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মির্জা আব্বাস। বলেন, ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি আবু আশফাকের বাসায়ও হামলা করা হয়েছে।’

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘সোহরাওয়ার্দী উদ্যান এবং তুরাগ নদীর তীর ব্যতীত রাজধানীর মধ্যে সন্তোষজনক আমরা যেটা নিরাপদ মনে করবো সেরকম স্থান যদি তারা আমাদের বলে তাহলে আমরা চিন্তা করে দেখব। যদি না পারে তাহলে আমাদেরকে বললে আমরা স্থানের কথা জানিয়া দেব।’

ঢাকায় সন্ত্রাসী কার্যক্রম করলে বিএনপিকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ কাউকে ইজারা দেওয়া হয়নি। সভা করা, সমাবেশ করা সাংবিধানিক অধিকার। এখানে উনি ছাড় দেওয়ার কে?’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, চেয়ারপারসনের বিশেষ সরকারী শামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, ঢাকা দক্ষিণ বিএনপি'র সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু ও ঢাকা দক্ষিণের ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/০৫ডিসেম্বর/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

রাজনীতি এর সর্বশেষ

আইইবি নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদের পরিচিত সভা অনুষ্ঠিত

রাষ্ট্রপতি পদে দলীয় প্রার্থী কে সিদ্ধান্ত দেবেন শেখ হাসিনা

ঢাবির আবাসিক হলে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, সভাপতির কক্ষে ভাঙচুর

জামিনে মুক্তি পেলেন ছাত্রদল নেতা হিমেল আল ইমরান

রাষ্ট্রপতির মনোনয়ন নিয়ে সংসদীয় কমিটিতে আলোচনা হয়নি: ওবায়দুল কাদের

পাল্টা কর্মসূচি দিয়ে আ.লীগের সংঘাতময় পরিস্থিতি তৈরি করতে চায়: সমমনা জোট

পদযাত্রা কর্মসূচির অনুমতি চেয়ে ডিএমপি কমিশনারকে বিএনপির চিঠি

জামিনে মুক্তি পেলেন ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি আবু আশফাক

আন্দোলনের কেন্দ্রবিন্দু হবে ঢাকা: ইশরাক

সরকারের সমালোচনা কখনোই রাষ্ট্রদ্রোহিতা হতে পারে না: জি এম কাদের

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :