মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে থাই উপকূলে আটকা পড়েছে ১৫০ রোহিঙ্গা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬:২৭

মিয়ানমারের দমন-পীড়ন থেকে বাঁচতে দেশ ছেড়ে পালানোর সময় থাইল্যান্ডের উপকূলে আটকা পড়েছে রোহিঙ্গা ভর্তি নৌকা। নৌকাটিতে ১৫০ জনের বেশি রোহিঙ্গা ছিল এবং তারা সমুদ্রপথে মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমাচ্ছিল বলে জানিয়েছে একটি এনজিও। খবর রয়টার্সের।

এনজিও জানিয়েছে, তাদের নৌকা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় বুধবার তারা আটকা পড়েছে। এর মধ্যে অনেকে মারা যেতে পারে এবং বেঁচে যাওয়াদের উদ্ধার করার জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

প্রতি বছর নির্যাতিত মুসলিম সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের অনেক সদস্য মিয়ানমারের নিপীড়ন ও সহিংসতা থেকে বাঁচতে এবং বাংলাদেশের শরণার্থী শিবির থেকে পালিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ডিঙি নৌকায় করে মালয়েশিয়া যাওয়ার চেষ্টা করে।

২০১৭ সালে রোহিঙ্গাদের ওপর ‘গণহত্যা’ ক্র্যাকডাউন চালানোর জন্য জাতিসংঘ কর্তৃক অভিযুক্ত সেনাবাহিনীকে ক্ষমতায় ফিরিয়ে এনে মিয়ানমারে গত বছরের শিবিরের অবস্থার অবনতি এবং সামরিক অভ্যুত্থানের পরে নৃশংসতার চিত্র দেখা গেছে।

যাত্রীদের আত্মীয়দের সাক্ষাৎকারের বরাত দিয়ে রাইটস গ্রুপ আরাকান প্রজেক্টের ডিরেক্টর ক্রিস লেওয়া বলেন, জাহাজটি নভেম্বরের শেষের দিকে বাংলাদেশ ছেড়েছিল এবং দক্ষিণ থাইল্যান্ডের রনং উপকূলে থাকা অবস্থায় ফুটো হতে শুরু করে। (তাদের) নৌকায় খাবার এবং জল প্রায় ফুরিয়ে গেছে। পুরুষরা মরিয়া হয়ে জাহাজ থেকে পানি সেঁচার চেষ্টা করছিল৷

তিনি আরও বলেন, বোর্ডে যারা ছিল তারা একটি থাই নৌকা দেখে সাহায্যের জন্য চিৎকার করেছিল বলে জানিয়েছে। কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক থাই নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তা ফোনে রয়টার্সকে জানিয়েছেন, নৌকাটি থাই জলসীমায় প্রবেশ করেনি এবং বর্তমানে ভারতীয় সীমানার মধ্যে আছে। জাহাজটির সঠিক অবস্থান অস্পষ্ট ছিল।

থাইল্যান্ড-ভিত্তিক রোহিঙ্গা কর্মী সিয়েদ আলম বলেছেন, তিনি জাহাজে থাকা ব্যক্তিদের আত্মীয়দের সঙ্গে কথা বলেছেন। কিছু যাত্রী নিহত হয়েছে বলেও তিনি দাবি করেছেন তবে তা যাচাই করা সম্ভব হয়নি।

সিয়েদ আলম জানিয়েছেন, ‘তাদের অবস্থা খুবই খারাপ... (তারা) ক্ষতবিক্ষত এবং যদি কোন সাহায্য না হয় তবে তারা মারা যাবে।’

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) শুক্রবার বলেছে, এই বছর মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে আন্দামান সাগর পাড়ি দেওয়ার চেষ্টা করা লোকের সংখ্যা ‘নাটকীয়ভাবে’ বৃদ্ধি পেয়েছে। কমপক্ষে ১ হাজার ৯০০ মানুষ পাড়ি দিয়েছিল যা বিশ্বের সবচেয়ে মারাত্মক ঘটনাগুলির মধ্যে একটি। এই সংখ্যা ২০২০ সালের তুলনায় ছয়গুণ বেশি।

এজেন্সি জানিয়েছে, চলতি বছরেই যাত্রার চেষ্টায় অন্তত ১১৯ জন মারা গেছে।

থাইল্যান্ডে ইউএনএইচসিআর-এর একজন মুখপাত্র বলেছেন, সংস্থাটি নৌকায় থাকা বর্তমান পরিস্থিতির জন্য গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। থাই কর্তৃপক্ষ তাদের উদ্ধার এবং নিরাপদে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে সহায়তা করার আশ্বাস দিয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/০৭ডিসেম্বর/ এসএটি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আন্তর্জাতিক এর সর্বশেষ

বিমান ছিনতাই হওয়ার ভুয়া টুইট যাত্রীর! তারপর…

ব্যস্ত মহাসড়কে গাড়ি থামিয়ে রিল, তরুণীকে গুনতে হলো জরিমানা

ভোটের আগে কঠোর নির্বাচনী আইন মিয়ানমার জান্তা সরকারের

৪ হাজার বছর আগের সোনায় মোড়ানো মমির সন্ধান

ইরানে আজারবাইজান দূতাবাসে সশস্ত্র হামলায় নিহত ১

৯ ফিলিস্তিনি হত্যার পর গাজায় ইসরায়েলের বিমান হামলা

ইউক্রেনে পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে যুক্তরাষ্ট্র-ন্যাটো, সতর্ক করল রাশিয়া

ইসরায়েলি হামলায় নয় ফিলিস্তিনি নিহত, নিরাপত্তা সহযোগিতা স্থগিত

জার্মানির লিওপার্ড ট্যাংক মার্চের শেষে ইউক্রেনে পৌঁছাবে

ইউক্রেনের খেরসন বন্দরে তুরস্কের মালিকানাধীন জাহাজে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :