ঝালকাঠি-১ আসনে বিপর্যস্ত বিএনপি, ওমরের বিকল্প এখন কে? 

এসএম রেজাউল করিম, ঝালকাঠি
| আপডেট : ১৫ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৪:২৪ | প্রকাশিত : ১৫ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৪:২২

বিএনপির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়া) আসন। এ আসনে বিএনপির প্রভাবশালী নেতা ছিলেন ব্যারিস্টার এম শাহজাহান ওমর বীর উত্তম। সম্প্রতি তিনি নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা। কারণ এতোদিন শাহজাহান ওমরই ছিলেন তাদের ভরসার আশ্রয়স্থল।

এ আসনে বিএনপিতে শাহজাহান ওমরের বিকল্প কে হতে পারে তা নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে চলছে আলোচনা পর্যালোচনা।

ইতোমধ্যেই রাজাপুর কাঠালিয়ার বিএনপির একটি অংশ নৌকা প্রতীকের নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছে। এ অবস্থায় আসনটিতে বিএনপির নেতাকর্মীরা মনোবল হারিয়ে ফেলেছেন। যদিও রাজাপুর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নাসিম আকন সংবাদ সম্মেলন করে দলীয় নেতাকর্মীদের সংঘবদ্ধ থাকার আহবান জানিয়েছেন।

তিনি শাহজাহান ওমরের পক্ষে কেউ নির্বাচনি প্রচারণায় নামলে তাকে দল থেকে বহিষ্কারের হুঁশিয়ারি দেন।

স্থানীয় বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শাহজাহান ওমর আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ায় ঝালকাঠি জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির প্রভাবশালী সদস্য রফিকুল ইসলাম জামাল এক ভিডিও বার্তায় ‘নেতাকর্মীদের হতাশ না হয়ে সংঘবদ্ধ থেকে আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাবার আহবান জানিয়েছেন। ভিডিও বার্তায় তিনি রাজাপুর ও কাঠালিয়ার নেতাকর্মীদের যেকোনো প্রয়োজনে পাশে থাকার ঘোষণা দেন।

রফিকুল ইসলাম জামাল ২০০৮ সালে বিএনপি থেকে নির্বাচনে অংশ নেন। এ সময় তিনি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বজলুল হক হারুনের কাছে হেরে গেলেও ৪০ হাজারের উপরে ভোট পেয়ে আলোচনায় আসেন। ২০১৮ সালেও শাহজাহান ওমরকে প্রধান প্রার্থী ও রফিকুল ইসলাম জামালকে বিকল্প প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়া হয়।

কাঠালিয়া উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি জালালুর রহমান আকন, আমুয়া ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন নিজাম মিরবহন ও রাজাপুর উপজেলা যুবদলের আহবায়ক পারভেজ আহমেদ বলেন, দলের দু:সময় জামাল ভাই সব সময়ই আমাদের পাশে ছিলেন, বর্তমানেও আছেন। ওয়ান-ইলেভেনের সময় শাহাজাহান ওমর যখন আমেরিকায় ছিলেন, তখনও রফিকুল ইসলাম জামাল ভাই এ আসনে বিএনপির হাল ধরেছিলেন।

অন্যদিকে নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে ঝালকাঠি-১ আসনের বিএনপির হাল ধরার প্রস্তুতি নিচ্ছেন নিউইয়র্ক সিটি দক্ষিণের আহবায়ক সেলিম রেজা। তার বাড়ি রাজাপুর উপজেলার শুক্তগড় ইউনিয়নে, তিনি বিএনপির প্রভাবশালী প্রবাসী নেতা হিসেবে পরিচিত। প্রবাসে থেকেও তিনি রাজাপুর-কাঠালিয়া উপজেলার বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলছেন। বিভিন্ন কর্মসূচিতে সাহায্য সহযোগিতা করে আসছেন বলে জানিয়েছেন নেতাকর্মীরা।

সেলিম রেজা ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে রাজাপুরে বিএনপির নির্বাচনে ধানের শীষের পক্ষে কাজ করেছেন। ২০০৪ সালে তিনি আমেরিকা প্রবাসী হন। ২০০৬ সালে আমেরিকার বিএনপির রাজনীতিতে তিনি ফ্রন্ট লাইনে চলে আসেন। বর্তমানে তিনি এলাকার বিএনপির নেতাকর্মীদের সার্বক্ষণিক খোঁজখবর নিচ্ছেন বলে জানান নেতাকর্মীরা।

কাঠালিয়া যুবদল নেতা আতিকুর রহমান বলেন, তিনি প্রবাসে থাকলেও এখন দেশের রাজনীতিতে তার আসার বিষয়টি সময়ের ব্যাপার মাত্র। যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সঙ্গে তিনি সক্রিয়।

রাজাপুর উপজেলা বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সহসম্পাদক মো. সজল সিকদার জানান, রেজা ভাইয়ের সঙ্গে আমরা ২০০২ সালে ছাত্রদলের রাজনীতি থেকে পরিচিত। তিনিও সেসময় ছাত্রদল করতেন। তিনি রাজাপুর ছাত্রদল ও যুবদলের সঙ্গে কথা বলেন, খোঁজখবর নেন প্রায়ই।

রাজাপুর উপজেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক গোলাম মোস্তাফা সিকদার জানান, সেলিম রেজা আমাদের এ আসনে শাহজাহান ওমরের শূন্যতা পূরণে যোগ্য ব্যক্তিত্ব। আমরা তাকে সবসময় কাছে পাই। তিনি যদিও দীর্ঘ সময় যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন। কিন্তু আমাদের প্রয়োজনে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন।

সেলিম রেজা বলেন, কেউ যদি আদর্শচ্যুত হয়ে দল ত্যাগ করে চলে যান তাতে দলের ক্ষতি হবে না। কারণ আমাদের নেতা তারেক রহমান বলেছেন ব্যক্তির চেয়ে দল বড় দলের চেয়ে দেশ বড়। আমরা কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি ঐক্যবদ্ধভাবে পালন করে যাচ্ছি। তাই বিজয় আমাদের সুনিশ্চিত।

(ঢাকাটাইমস/১৫ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/জেডএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

বাংলাদেশ এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর

শিরোনাম :