নোয়াখালীতে সম্পত্তির বিরোধকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, নিহত ১

নোয়াখালী প্রতিনিধি, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭:১১

নোয়াখালীতে সম্পত্তির বিরোধকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে খোরশেদ আলম (৫৮) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার সকালে সেনবাগ উপজেলার বীজবাগ ইউনিয়নের মধ্যম বালিয়াকান্দি গ্রামের কবির মাস্টারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত খোরশেদ আলম ওই বাড়ির মুকবুল আহম্মদের ছেলে।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, বালিয়াকান্দি গ্রামের কবির মাস্টার বাড়ির খোরশেদ আলমের সঙ্গে একই বাড়ির শহীদ উল্ল্যাহর পরিবারের সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ ছিল। সোমবার রাতের শহীদ উল্ল্যাহর পরিবারের লোকজন টয়লেট পরিষ্কার করে ওই ময়লা খোরশেদ আলমের বসত ঘরের পাশে ফেলে রাখে।

মঙ্গলবার সকালে খোরশেদ আলম ময়লার দুর্গন্ধ পেয়ে ঘরে বাইরে গিয়ে ময়লা দেখে বকাঝকা করলে শহীদ উল্ল্যাহর সঙ্গে খোরশেদ আলমের বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে শহীদ উল্যাহ এবং তার ছেলে সোহাগ, সুমন ও হিমেল বাবু একত্রিত হয়ে খোরশেদ আলমের পরিবারের ওপর হামলা চালায়। শহীদ উল্ল্যাহ ও তার ছেলেরা লাঠি দিয়ে খোরশেদ আলমকে এলোপাথাড়ি পেটালে তিনি ঘটনাস্থলে মারা যান। এসময় আহত হন খোরশেদ আলমের স্ত্রী জয়নবের নাহার, ভাইয়ের স্ত্রী শিরিন আক্তার, বোন রেহেনা আক্তার বেবি, ছেলে মো. মহসিন আলম পলাশ ও ছেলের স্ত্রী হালিমা আক্তার, নাতি মাহবুব আলম। আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

খবর পেয়ে সেনবাগ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের মৃতদেহ উদ্ধারসহ হামলাকারী শহীদ উল্ল্যাহ তার ছেলে অলি উল্ল্যা ও ছেলের স্ত্রী ফোরকানের নেছাকে আটক করেছে।

মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাজিম উদ্দিন জানান, ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

(ঢাকাটাইমস/২৭ফেব্রুয়ারি/প্রতিনিধি/পিএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :