সালথা-নগরকান্দায় বাড়িঘর ভাঙচুর

ফরিদপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ মার্চ ২০১৯, ২০:৩৩

ফরিদপুরের নগরকান্দা ও সালথায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। ফলে বাড়িঘর ও দোকানে হামলা, ভাঙচুর এবং লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সালথা উপজেলার ভাওয়াল ইউনিয়নের ইউসুফদিয়া, তুঘলদিয়া, পীড়ের কামদিয়া, পুররা, সাধুপাড়া, ভদ্রপাড়ায় এসব ঘটনা ঘটে। বিজয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা এসব হামলা করেছেন বলে দাবি নৌকা প্রার্থীর সমর্থকদের।

ভদ্রপাড়া গ্রামে মন্টু ডাক্তারের বাড়িতে হামলা করে দরজা, জানালা ভাঙচুর করা হয়। এছাড়া তুঘলদিয়া গ্রামে ওমর মোল্লার বাড়িতেও হামলা হয়। তুঘলদিয়া বাজারে দোকান লুট হয়েছে বলে দাবি করেন ক্ষতিগ্রস্ত ফরিদ শেখ।

মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে সাড়ে ৬টার মধ্যে উপজেলার রামকান্তপুর ইউনিয়নে বিজয়ী ও পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকরা সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। তবে দ্রুত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সালথা উপজেলা আ.লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পরাজয় বরণকারী আ.লীগ প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন জানান, ‘হামলার ভয়ে ভাওয়াল ইউনিয়নের পুররা, সাধুপাড়া, ভদ্রপাড়া এলাকার হিন্দু সম্প্রদায়ের বাসিন্দারা আতঙ্কে আছেন।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচনের দিন গট্টি ইউনিয়নের সাতটি কেন্দ্রে তার এজেন্ট বের করে দিয়ে ভোট কাটা হয়েছে। কিন্তু অভিযোগ দিলেও তা আমলে নেয়া হয়নি।’

সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘রামকান্তপুরে দুই পক্ষের সংঘর্ষ থামিয়ে দেয় পুলিশ।’

বিভিন্ন জায়গায় হামলার ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘থানায় কেউ কোন অভিযোগ দেয়নি।’

এদিকে ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের আটাইল গ্রামে বিজয়ী ও পরাজিত সমর্থকদের হামলা ও পাল্টা হামলায় আ.লীগের একটি নির্বাচনী কার্যালয়, তিনটি দোকান ও আটটি বাড়ি ভাঙচুর হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

সোমবার রাতে পরাজিত অনারস প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় আ.লীগ সমর্থক ফিরোজ শেখ, আমির আলী, ও গোপালের তিনটি বাড়ি ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্তরা জানান, ‘নগরকান্দা উপজেলা পরিষদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মনিরুজ্জামান সরদার বিজয়ের ঘোষণা হওয়ার পর আ.লীগ বিদ্রোহী আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজি শাহ জামানের সমর্থকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে নৌকা সমর্থকদের বাড়িঘর ও এলাকার আওয়ামী লীগ অফিস ভাঙচুর করে।

এর জের ধরে মঙ্গলবার সকালে নৌকার সমর্থকরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বাড়িতে হামলা করে  সবুজ, মানিক সর্দার, ইমারত, তিতাস ও সোনা মাতুব্বরের বাড়ি ভাঙচুর করে।’

নগরকান্দা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিরাজ হোসেন জানান, ‘এ ঘটনায় প্রশাসনের পক্ষ হতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

(ঢাকাটাইমস/১৯মার্চ/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :