ইউডায় ভর্তি মেলা, পরিবারের আয়েরভিত্তিতে টিউশন ফি নির্ধারণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ২২:৪২

শিক্ষার্থীদের পরিবারের আয়েরভিত্তিতে তাদের টিউশন ফি নির্ধারণ করবে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ (ইউডা)। পরিবারের আয় কম হলে নামমাত্র খরচে, আবার শিক্ষার্থী মেধাবী হলে বিনা বেতনে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ার সুযোগ পাবেন শিক্ষার্থীরা। এছাড়া মেধাবীদের জন্য বিশেষ ছাড় এবং অনুন্নত অঞ্চলের শিক্ষার্থী, অথচ দরিদ্র এমন শিক্ষার্থীরা বিনা বেতনে পড়ার সুযোগ পাবেন।

রবিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদে উইন্টার সেশনে ভর্তি মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়্যারমান অধ্যাপক মুজিব খান।

এসময় তিনি জানান, ১৭ নভেম্বর থেকে ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত এই ভর্তি মেলা চলবে। মেলায় স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের পরিবারের আয়েরভিত্তিতে টিউশন ফি নির্ধারণের সুযোগ।

এছাড়া ভর্তি ফি-তে পাঁচ হাজার টাকা পর্যন্ত বিশেষ ছাড়, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক দুটিতে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীরা পাবেন টিউশন ফির ওপর এক লাখ টাকা বৃত্তি সুবিধা। আবার মাধ্যমিক বা উচ্চ মাধ্যমিকের যে কোনো একটিতে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থী পাবেন ৫০ হাজার টাকা বৃত্তি।

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য মাসিক টিউশন ফির ওপর ১৫ শতাংশ বৃত্তি সুবিধা, নারী শিক্ষার্থীদের জন্য ১০ শতাংশ বৃত্তি সুবিধা। আদিবাসী, নৃ-গোষ্ঠী সন্তানদের জন্য মাসিক টিউশন ফির ওপর ১৫ শতাংশ ওয়েভার সুবিধা রাখা হয়েছে।

সরকার নির্ধারিত মুক্তিযোদ্ধা কোটায় এবং প্রত্যন্ত ও অনুন্নত অঞ্চলের মেধাবী দরিদ্র কোটায় বিনা বেতনে অধ্যয়নের সুযোগ থাকছে।

স্নাতকোত্তর ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের মেলা উপলক্ষে ভর্তি ফি-তে তিন হাজার হাজার পর্যন্ত ছাড় দেয়া হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক উভয় পরীক্ষায় জিপিএ-৫ এবং স্নাতকে ৩.৭৫ পাওয়া শিক্ষার্থীরা পাবেন টিউশন ফির ওপর ২৪ হাজার টাকা বৃত্তি।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক উভয় পরীক্ষায় জিপিএ-৫ এবং স্নাতক শ্রেণিতে সিজিপিএ ৩.৫ এর ওপরে প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মোট টিউশন ফির ওপর ১২ হাজার টাকা বৃত্তি সুবিধা রাখা হয়েছে।

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য মাসিক টিউশন ফির উপর ১৫ শতাংশ বৃত্তি সুবিধা, নারী শিক্ষার্থীদের জন্য ১০ শতাংশ বৃত্তি সুবিধা। আদিবাসী, নৃ-গোষ্ঠী সন্তানদের জন্য মাসিক টিউশন ফির উপর ১৫ শতাংশ ওয়েভার সুবিধা রাখা হয়েছে।

অধ্যাপক মুজিব খান বলেন, ‘মেধাবী অথচ বিত্তশালী নয়- এমন শিক্ষার্থীদের জন্য আমরা আয়োজন করে থাকি ভর্তি মেলার। আমরা নানা দিক থেকে শিক্ষার্থীদের সুবিধা দেয়ার চেষ্টা করছি, যাতে এ বিশ্ববিদ্যালয় প্রকৃত মেধাবী, অদম্য গরিব মেধাবীরা যেন উচ্চ শিক্ষায় সুযোগ পায়। তাই আমরা এবারও চাই, শিক্ষার্থীদের পারিবারিক আয় ও তাদের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে মেধার অর্জিত ফলাফলেরভিত্তিতে অভিভাবকের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে ভর্তি ও মাসিক বেতন নির্ধারণ করতে। তবুও উচ্চশিক্ষা থেকে যেন কেউ বঞ্চিত না হয়।’

মেলা চলাকালে প্রতিদিন সকাল সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা ভর্তি হতে পারবে।

অনুষ্ঠানে আরো ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম শরীফ, রেজিস্ট্রার ড. ইফফাত কায়েস চৌধূরী, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় চেয়্যারমান, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রসংসদ প্রতিনিধি ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।

(ঢাকাটাইমস/১৭নভেম্বর/কারই/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :