রোম দূতাবাসে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

ইউরোপ ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ জানুয়ারি ২০২০, ২২:০৭

ইতালিস্থ  বাংলাদেশ দূতাবাস রোমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ক্ষণগণনার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ও বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দূতাবাসের কনফারেন্স রুমে প্রথম সচিব এএসএম সায়েমের পরিচালনায় সভাপতিত্ব করেন রাষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান সিকদার।

রাষ্ট্রদূত বলেন, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের বাঙালি জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন বঙ্গবন্ধু। ২৫ মার্চ কালরাতে বর্বর হানাদার বাহিনী নিরীহ বাঙালি জাতির ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। বঙ্গবন্ধুকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায় পাকিস্তান সেনাবাহিনী। শুরু করে গণহত্যা।

এদিকে বঙ্গবন্ধুর ডাকে তার অনুপস্থিতিতেই রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে আপামর বাঙালি জনতা। বহু ত্যাগ-তিতীক্ষার পর ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করে।

তবে মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি থাকায় বাঙালির অর্জিত বিজয় যেন পূর্ণতা পায়নি। তাই উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার মধ্যদিয়ে তার ফেরার অপেক্ষায় ছিল বিজয়ী বাঙালি জাতি।  

বাংলাদেশের মানুষের দাবি ও আন্তর্জাতিক চাপের কাছে নতিস্বীকার করে অবশেষে ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয় পাকিস্তান। কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে সেখান থেকেই লন্ডনে যান তিনি।

লন্ডন থেকে দিল্লি হয়ে ১০ জানুয়ারি দেশে ফেরেন বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা শেখ মুজিবুর রহমান। একটি স্বাধীন, স্বনির্ভর ও সর্বোভৌম বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু আজীবন লড়াই করে গেছেন।

রাষ্ট্রদূত ল্যাপটপে কাউন্ট-ডাউন ঘড়িতে সেই কাঙ্ক্ষিত দিনটির জন্য ক্ষণগণনার উদ্বোধন করেন এবং  বলেন, আজকের এই মুহূর্ত আমাদের করেছে সর্বোচ্চ গর্বিত। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ এই বাঙালির জন্মশতবার্ষিকীকে সাফল্য এবং তাৎপর্যমণ্ডিত করতে দূতাবাস বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। সেগুলো বাস্তবায়নের জন্যে তিনি সবার প্রতি আহ্বান জানান।

এসময় রোম কমিউনিটির শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

(ঢাকাটাইমস/১১জানুয়ারি/কেএম/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রবাসের খবর বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :