সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিককে মামলার হুমকি এসআইয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ আগস্ট ২০২০, ১৬:১৬

সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিক ইফতেখার রায়হানকে মামলার হুমকি দিয়েছেন টঙ্গী পূর্ব থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহীন মোল্লা। ইফতেখার ঢাকা টাইমসের টঙ্গী প্রতিনিধি।

গত ৯ আগস্ট ‘টঙ্গী পূর্ব থানার বিতর্কিত এসআই শাহীন মোল্লার বদলি’ শিরোনামে ইফতেখারের একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। এরপর ১১ আগস্ট দুপুরে তাকে মুঠোফোনে মামলার হুমকি দেন এসআই শাহীন মোল্লা।

নানা কারণে বিতর্কিত এসআই শাহীন মোল্লাকে গত ৬ আগষ্ট গাজীপুর মহানগর পুলিশের সদর দপ্তরের (জিএমপি) অধীনে ট্যুরিস্ট পুলিশে বদলি করা হয়। তবে তিনি বদলিকৃত জায়গায় যোগ দেননি।

সাংবাদিক ইফতেখার রায়হান জানান, টঙ্গী পূর্ব থানার এসআই শাহীন মোল্লার বদলি আদেশ, বিভিন্ন সময়ে মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সখ্যতা ও মাদক ব্যবসায়ীদের আটক করে টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেওয়ার ঘটনায় ঢাকা টাইমসে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

ইফতেখার বলেন, “ওই সংবাদ প্রকাশের পর এসআই শাহীন মোল্লা আমাকে নিয়ে বিভিন্ন লোকজনের কাছে মিথ্যা ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেন। এসআই শাহীন মোল্লার মুঠোফোনে যোগাযোগ করে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, ‘আপনি আমার কাছে টাকা দাবি করেছেন। টাকা দেইনি বলে আপনি আমার বিরুদ্ধে নিউজ করেছেন। আপনার বিরুদ্ধে আমি নিয়মিত মামলা করবো। আপনি ভণ্ড প্রতারক।”

জানা গেছে, নিজেকে গোপালগঞ্জের বাসিন্দা পরিচয় দিয়ে প্রভাব খাটাতেন এসআই শাহীন মোল্লা। টঙ্গী এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সখ্য, ঘুষ গ্রহণসহ বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের অভিযোগ রয়েছে।

২০১৯ সালের ১৭ জুলাই টঙ্গী পূর্ব থানায় যোগদানের পর এসব বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের কারণে এসআই শাহীন মোল্লাকে তিনবার বদলি করা হয়।কিন্তু অদৃশ্য কারণে বদলির পর ফের একই থানায় বহাল তবিয়তে থেকে যান।

জিএমপি সূত্র জানায়, গত বছরের ২৭ নভেম্বর এসআই শাহীন মোল্লাকে রংপুর রেঞ্জে বদলি করা হয়। এর একমাস পর ১৫ ডিসেম্বর রংপুর রেঞ্জের বদলি আদেশ প্রত্যাহার করে তাকে বরিশাল রেঞ্জে বদলি করা হয়। সবশেষ গত ৬ আগস্ট এসআই শাহীন মোল্লাকে জিএমপির ট্যুরিস্ট পুলিশে বদলি করা হয়।

৮ আগস্টের মধ্যে বদলিকৃত ইউনিটে যোগদানের জন্য ছাড়পত্র নেওয়ার নির্দেশনা থাকলেও এখনও তিনি ছাড়পত্র নেননি। উপরন্তু বদলি আদেশ বাতিলের জন্য বিভিন্ন মহলে তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

সাংবাদিক ইফতেখারকে হুমকির বিষয়ে জানতে চাইলে টঙ্গী থানার এসআই শাহীন মোল্লা ঢাকা টাইমসের কাছে দাবি করেন, তার প্রতিপক্ষ একজন পুলিশ সদস্যের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে ওই সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে।

এসআই শাহীন মোল্লা বলেন, ‘তিনি আমার বিরুদ্ধে একটি সংবাদ পরিবেশন করেছেন। আমি তাকে (ইফতেখার) বলেছি আপনি সাংবাদিক ঠিক আছে, কিন্তু কোনো কিছুর সত্যতা যাচাইবাছাই না করে কোনো সংবাদ পরিবেশন করা ঠিক না। এতে সবার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়।’

গাজীপুর মহানগর পুলিশের (জিএমপি) সহকারী পুলিশ কমিশনার (টঙ্গী জোন) আশরাফুল ইসলাম ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘সংবাদ প্রকাশের কারণে কেউ যদি তাকে (ইফতেখার) ডিস্টার্ব করে তাহলে সেটা আমরা দেখব।’

গাজীপুর মহানগর পুলিশের (জিএমপি) কমিশনার আনোয়ার হোসেন এসআই শাহীন মোল্লার মামলার হুমকির বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে ঢাকা টাইমসকে জানিয়েছেন।

(ঢাকাটাইমস/১৪আগস্ট/এএ/ডিএম)

সংবাদটি শেয়ার করুন

গণমাধ্যম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :