‘মিডনাইটের সরকারের পতন ঘটাতে হবে’

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২২:০৮

বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারকে ‘মিডনাইট সরকার’ আখ্যায়িত করে বিএনপির জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান দলের নেতাকর্মীদের আন্দোলনে সক্রিয় থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ‘এই মিডনাইট সরকারকে পতন ঘটাতে হবে।’

শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার পাচরুখী এলাকায় কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদের স্থানীয় বাড়িতে নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটির পরিচিতি সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, আজকে দেশনেত্রী খালেদা জিয়া কারামুক্ত। কিন্তু তিনি এখনও অবরুদ্ধ। গোটা দেশটাই আজ অবরুদ্ধ। অবরুদ্ধ দেশকে মুক্ত করতে স্বেচ্ছাসেবক দলকে দায়িত্ব নিতে হবে। মিটনাইটের সরকারের পতন ঘটাতে হবে, গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে। এটাই হবে স্বেচ্ছাসেবক দলের দায়িত্ব। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার স্লোগান ‘দেশ বাঁচাও, মানুষ বাঁচাও’ বাস্তবায়নে কাজ করবে স্বেচ্ছাসেবক দল। বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করবে।

এর আগে তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, স্বেচ্ছাসেবক দল প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল সংগঠনের নেতাকর্মীরা দেশে ঝড়, বন্যা, জলোচ্ছ্বাস, মহামারীসহ যেকোন জাতীয় দুর্যোগ, দেশের মানুষের অধিকার ও গণতন্ত্র রক্ষায় কাজ করবেন। কোনও কাজেই তারা ব্যর্থ হবেন না। অন্যরা যেখানে ব্যর্থ হবেন স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনের নেতাকর্মীরা সেখানে এগিয়ে যাবেন। আজকে স্বেচ্ছাসেবক শুধু শীতকালে বস্ত্র বিতরণেই নয়, করোনা মহামারীতে অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য বিতরণেই নয়, এখন গণতন্ত্রের ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে রাজপথে যুদ্ধ করতেও শিখে গেছে স্বেচ্ছাসেবক দল।

তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল সায়েম-মাহাবুবের নেতৃত্বে আগামীতে রাজপথের আন্দোলনে সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে বলে আমি বিশ্বাস করি। পূর্ণাঙ্গ কমিটির প্রত্যেক নেতা একেকজনকে সায়েম মাহাবুব হতে হবে।

নারায়ণগঞ্জের সকল নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথি বলেন, অতি দ্রুত নারায়ণগঞ্জ জেলার উপজেলা/থানা, পৌর ও ইউনিয়ন কমিটিগুলো গঠনের জন্য অনুমতি দেয়া হবে। তাহলে পরিপূর্ণ হবে শক্তিশালী হবে নারায়ণগঞ্জ স্বেচ্ছাসেবক দল। এর আগে তিনি নারায়ণগঞ্জ জেলা পূর্ণাঙ্গ কমিটির সকল নেতাকর্মীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটির পরিচিতি সভায় গণতন্ত্রের মুক্তির আন্দোলনে শপথ নিয়েছেন নেতাকর্মীরা। পরিচিতি সভায় নেতাকর্মীরা দেশে ভোটের অধিকার, মানুষের মৌলিক অধিকার ও গণতন্ত্র উদ্ধারে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে সক্রিয় ভূমিকা রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। একই সঙ্গে আবারো বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বক্তব্য রাখেন নেতারা। বেগম খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী করে দেশে তারেক রহমানকে ছিনিয়ে আনার প্রত্যয়ও ব্যক্ত করেন নেতারা।

অনুষ্ঠানে জেলা কমিটির আওতাধীন ফতুল্লা, সোনারগাঁও, আড়াইহাজার, রূপগঞ্জসহ প্রতিটি থানা পৌরসভা ও ইউনিয়ন এলাকা থেকে জেলা কমিটিতে পদ পাওয়া নেতারা অংশগ্রহণ করেন। স্বেচ্ছাসেবক দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটির ১৭১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটির নেতাদের মিলনমেলায় পরিণত নয়। যেখানে কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক দলের শীর্ষ পর্যায়ের ডজন খানিক নেতাও উপস্থিত থেকে পূর্ণাঙ্গ কমিটির নেতাদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।

পরিচিতি সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার বিএনপি নেতাকর্মীদের আস্থারস্থল নজরুল ইসলাম আজাদ।

তিনি শুভেচ্ছা বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আনোয়ার সাদাত সায়েম ও সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব রহমানের নেতৃত্বের প্রশংসা করে বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল সায়েম-মাহাবুবের নেতৃত্বে আন্দোলন সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। সেই সঙ্গে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সঙ্গে আড়াইহাজারের স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরাও রাজপথে সমানতালে ভূমিকা রাখবে।

কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা আজাদ আরও বলেন, এ দেশের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে, মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে আনতে গণতন্ত্রের জন্য রাজপথে যুদ্ধ করতে হবে। আশা করি স্বৈরাচারী সরকারের পতন ঘটাতে রাজপথে কাজ করবে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল।

এ সময় নজরুল ইসলাম আজাদ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের পূর্ণাঙ্গ কমিটির সকল নেতৃবৃন্দকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আনোয়ার সাদাত সায়েমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব রহমানের সঞ্চালনায়, সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন সালুর সহযোগিতায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি গোলাম সারোয়ার, মোস্তাকুর রহমান মোস্তাক, ওয়াহিদ বিন ইমতিয়াজ বকুল, ঢাকা বিভাগীয় সহ-সভাপতি আরিফ হাওলাদার, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াছিন আলী, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, যুগ্ম সম্পাদক সাদরেজ জামান, হাসান বিন সোহাগ।

এছাড়াও সম্মানিত অতিথি হিসেবে জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি লুৎফর রহমান আব্দু, আড়াইহাজার বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবু ও আড়াইহাজার উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক জুয়েল আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৩ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের ১৭১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটির তৎকালীন সভাপতি প্রয়াত শফিউল বারী বাবু ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল।

কমিটিতে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক ছাড়াও কমিটিতে ১৬ জন সহ-সভাপতি, ৭ জন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ১৬ জন সহ-সম্পাদক, ৯ জন সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, ৭৬ জন সম্পাদক ও সহ-সম্পাদক সহ ৪৪ জনকে সদস্য করা হয়।

এর আগে ২০১৮ সালের ২৬ জুন নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এতে সভাপতি পদে আনোয়ার সাদাত সায়েম ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হোন মাহাবুবু রহমান।

কমিটিতে সাংগঠনিক সম্পাদক পদে রয়েছেন সালাহউদ্দিন সালুকে, সহ-সভাপতি পদে মোল্লা মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন ও জাকারিয়া সালেহ স্বপন এবং যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদে জিএস শাহ আলম ও সালাহউদ্দিন দেওয়ানকে রাখা হয়।

(ঢাকাটাইমস/২৬প্টেম্বর/েএলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :