‘সাংবাদিক আফজালের মামলা প্রত্যাহার দাবি, অন্যথায় নাজিরের অফিস ঘেরাও’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ৩০ মে ২০২১, ১৫:৫৮

আদালতের একজন কর্মচারীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির প্রতিবেদন করার পর সময় টিভির সিনিয়র রিপোর্টার আফজাল হোসেনের নামে দায়ের হওয়া মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে ল' রিপোর্টার্স ফোরাম (এলআরএফ)। অন্যথায় নোয়াখালী কোর্টের নাজির আলমগীর হোসেনের অফিস ঘেরাও করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন তারা।

রবিবার সুপ্রিম কোর্টের মূল ফটকের সামনে সংগঠনটির এক মানববন্ধনে বক্তারা এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

সাংবাদিক আফজাল হোসেনের ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক।

সংগঠনটির সভাপতি মাশহুদুল হক বলেন, অবিলম্বে এলআরএফের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় সাংবাদিকদের নিয়ে নোয়াখালীতে দুর্নীতিবাজ নাজিরের অফিস ঘেরাও করা হবে। প্রয়োজনে নোয়াখালী আদালতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে। এ সময় তিনি দুর্নীতিবাজ নাজির আলমগীরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে প্রধান বিচারপতি, আইনমন্ত্রীর প্রতি আহবান জানান।

মানববন্ধনে অন্যান্য বক্তারা বলেন, দুর্নীতির মামলায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দেয়া তদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে আফজাল হোসেন তার প্রতিবেদন তৈরি করেছেন। এখানে তার ব্যক্তিগত কোনো বক্তব্য প্রচারিত হয়নি৷ এমন একটি প্রতিবেদন নিয়ে এভাবে হয়রানিমূলকভাবে একের পর এক মামলা করা উদ্বেগজনক৷ এ ধরনের মামলা স্বাধীন সাংবাদিকতা ও মুক্তগণমাধ্যমের নীতির চূড়ান্ত অবমাননা।

বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সাংবাদিকদের কণ্ঠরোধের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে উল্লেখ করে বক্তারা অবিলম্বে এই আইন বাতিলের দাবি জানান।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্দ ইয়াছিনের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সাবেক সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম দিদার, হাসান জাবেদ, সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, বর্তমান কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম মল্লিক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জাকের হোসেন, সাবেক প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক মাসউদুর রহমান রানা প্রমুখ।

কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করেছেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু।

উপস্থিত ছিলেন ডিআরইউর সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মুহাম্মদ জামাল হোসাইন, এলআরএফের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম পান্নু, নাজমুল আহসান রাজু প্রমুখ।

আদালতের একজন কর্মচারীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির প্রতিবেদন করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ও মানহানির অভিযোগে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়। নোয়াখালী আদালতের নাজির আলমগীর হোসেন গত ১১ মে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গত ৫ মে নোয়াখালীর প্রথম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে একই ব্যক্তি ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে আরেকটি মামলা করেন। আফজাল হোসেনসহ সময় টিভির তিন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/৩০মে/এআইএম/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

গণমাধ্যম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :