ভিকারুননিসার পোশাক সরবরাহে সমস্যা নিয়ে আপিলের শুনানি ১৬ নভেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৪১ | প্রকাশিত : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৫৮

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের পোশাক সরবরাহে সমস্যা সমাধানে মেসার্স চৌধুরী এন্টারপ্রাইজের আপিলের পরবর্তী শুনানির জন্য ১৬ নভেম্বর দিন নির্ধারণ করেছেন আদালত।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর ঢাকার ৪র্থ যুগ্ম জেলা জজ আদালতের বিচারক কানিজ ফাতেমা এ তারিখ নির্ধারণ করেন।

আপিলে বিবাদী করা হয়েছে প্রতিযোগিতা কমিশনসহ সংশ্লিষ্টদের। চলতি বছরের ২৮ মার্চ আপিলটি দায়ের করেন মেসার্স চৌধুরী এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. ইব্রাহিম মোল্লা।

আপিলে বাদী বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সুনামের সঙ্গে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের ড্রেস সরবরাহ করছে মেসার্স চৌধুরী এন্টারপ্রাইজ। ব্যবসায়িক প্রতিপক্ষের প্ররোচনায় প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে একটি জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশ করা হয় ২০১৮ সালে। এই প্রতিবেদনকে আমলে নিয়ে তদন্ত শুরু করে প্রতিযোগিতা কমিশন। এরপর কমিশন আইনের কোনো ভিত্তি ছাড়াই পোশাক সরবরাহের চুক্তি বাতিল করে।

গত ৭ সেপ্টেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের সচিবের কাছে বিষয়টি সমাধানের জন্য একটি আবেদন করেন মেসার্স চৌধুরী এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. ইব্রাহিম মোল্লা। আবেদনে তিনি বলেন, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অভ্যন্তরে কক্ষ ভাড়া নিয়ে ছাত্রীদের ইউনিফর্মসহ যাবতীয় শিক্ষাসামগ্রী অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে ও স্কুল কর্তৃক নির্দেশিত নিয়মে সরবরাহ করে আসছি। প্রতিযোগিতা কমিশনের একটি মামলা চলমান থাকা অবস্থায় হঠাৎ করে আমার নিজ অর্থে তৈরিকৃত কক্ষগুলোতে অতিরিক্ত তালা মারা হয় এবং ব্যবহৃত তালায় সিল করা হয়। করোনা পরিস্থিতিতে ২০২০ সালের ২০ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যায়, কিন্তু বর্তমান প্রেক্ষাপটে সরকার ঘোষিত নির্দেশনায় যখন অ্যাসাইনমেন্ট ও অন্যান্য কারণে ছাত্রীদের পোশাকের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয় এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার আগ মুহূর্তে এমন ঘটনায় আমরা চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে আছি। এতে ছাত্রীদের প্রয়োজনীয় ইউনিফর্মসহ অন্যান্য সামগ্রী সরবরাহ করা অসম্ভব হয়ে পড়বে। এজন্য বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করছি।

এমন আবেদনে সাড়া না পেয়ে ঢাকার চতুর্থ যুগ্ম জেলা জজ আদালতে একটি মামলা করেন মো. ইব্রাহিম মোল্লা। সে মামলাটি আমলে নিয়ে বিবাদীদের সমন জারি করেন আদালত। পরবর্তী আদেশের জন্য ১৬ নভেম্বর দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/১৬সেপ্টেম্বর/এআইএম/কেআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :