মৃগীরোগের চিকিৎসার গাইড লাইন উদ্বোধন

সঠিক রোগ নির্ণয় ও চিকিৎসায় ৭০ ভাগ মৃগীরোগী সুস্থ হন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৪ নভেম্বর ২০২১, ১৮:৩৭

বিশ্বে প্রায় পাঁচ কোটি লোক মৃগীরোগে আক্রান্ত । আর বাংলাদেশে প্রতি হাজারে প্রায় ৮ জন লোক রোগে আক্রান্ত। সেই হিসেবে দেশে প্রায় পৌনে ১৪ লাখ মৃগীরোগী আছে। গবেষণা বলছে- সঠিকভাবে রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসা নেয়া সম্ভব হলে ৭০ ভাগ মৃগীরোগী সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন।

মৃগীরোগীদের সঠিক চিকিৎসার জন্য মৃগীরোগ চিকিৎসার গাইড লাইনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানানো হয়। বুধবার রাজধানীর হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টালে মৃগী রোগের চিকিৎসার গাইডলাইন উদ্বোধন করা হয়।

‘সোসাইটি অফ নিউরোলজিস্ট অফ বাংলাদেশের’ উদ্যোগে তৈরিকৃত এই গাইড লাইন প্রকাশ অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও পরিবার কল্যাণ জাহিদ মালেক বলেছেন, মৃগী রোগের চিকিৎসায় দেশে আধুনিক মানের ইনস্টিটিউট গড়ে তোলা হবে।

মন্ত্রী বলেন, মৃগীরোগ নিয়ে এক সময় ভুল ধারণা ছিল। বলা হতো ভূতে ধরেছে। কিন্তু এটা ভুল ধারণা। গর্ভবতী মা যদি আঘাতপ্রাপ্ত হয় বা প্রসবের সময় মায়ের অক্সিজেন স্বল্পতা দেখা দেয় তবে নবজাতকের মাঝে বা শিশুর মাঝে মৃগীরোগের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

অন্যান্য রোগীদের নিয়ে সরকার যেমন কাজ করছে, মৃগী রোগীদের জন্যও কাজ করবে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, নিউরো সমস্যায় যারা পড়েন তাদের জন্য নিউরোসায়েন্স ইনস্টিটিউট তৈরি করা হয়েছে। নাক, কান গলা ইনস্টিটিউট করা হয়েছে। আমরা মনে করি ইপিলিপসি রোগীদের জন্যও আধুনিক প্রতিষ্ঠান করার জন্য কাজ করবো।

মন্ত্রী তার বক্তব্যে করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে থাকলেও সকলকে মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, শতকরা প্রায় ৮০ জন মৃগীরোগী উন্নয়নশীল, দরিদ্র, মধ্যম আয়ের অথবা স্বল্প বিশেষজ্ঞ সম্পন্ন দেশে বিদ্যমান।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য মো. শারফুদ্দিন আহমেদ মৃগীরোগীদের সহানুভূতির সাথে চিকিৎসাসেবা দেয়ার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, মৃগীরোগ বিষয়ে আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাসহ এই রোগের চিকিৎসার বিষয়ে সুযোগ-সুবিধা আরো বৃদ্ধি করতে হবে। বিএসএমএমইউর নিউরোলজি বিভাগ, শিশু নিউরোলজি বিভাগ, ইপনা মৃগীরোগীদের চিকিৎসাসেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।

তিনি তার বক্তব্যে করোনা মোকাবিলায় সক্ষম হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্বাস্থ্যমন্ত্রীসহ চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের ধন্যবাদ জানান।

গাইড লাইন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব আলী নূর, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, বিসিপিএস সভাপতি অধ্যাপক ডা. কাজী দীন মোহাম্মদ বক্তব্য রাখেন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন সোসাইটি অফ নিউরোলজিস্ট বাংলাদেশের মহাসচিব ও বিএসএমএমইউর নিউরোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান আবু নাসার রিজভী।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিএসএমএমইউর নিউরোলজি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম।

(ঢাকাটাইমস/২৪ নভেম্বর/এএ/বিইউ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :